তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলে রণক্ষেত্র কোচবিহার, আটক শাসক দলের অঞ্চল সভাপতি সহ ১৬, এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী

ইউবিজি নিউজ, কোচবিহার : রবিবার রাত থেকেই দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়ায় কোচবিহার নাটাবাড়ি বিধানসভা এলাকার দেওচড়াই চুলকানি বাজার এলাকায়।

সোমবার সকালে এলাকায় উপস্থিত হন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী তথা এলাকার বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তিনি এলাকার ছাড়তেই পুনরায় চরম আকার ধারণ করে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল।

ঘটনায় রবীন্দ্রনাথ ঘোষ ঘোষিত অঞ্চল সভাপতি মজিবর রহমানকে আটক করেছে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ, সেই সাথে আরও ১৫ জনকে আটক করা হয়েছে। বিরাট পুলিশ বাহিনী এলাকায় এখনো টহল দিচ্ছে।

ঘটানার সূত্রপাত রবিবার। রাত সারে আটটা নাগাদ দেওচড়াই গ্রাম পঞ্চায়েতের চুলকানীর বাজার এলাকায় দুটি বাইক বাইক ভাঙচুর করা হয় । খবর পেয়ে তুফানগঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী পৌছায় এলাকায় ।

এদিন সকালে এলাকায় পৌছান মন্ত্রী। তার পরেই দুই গোষ্ঠী সংঘর্ষে জরিয়ে পরে।মন্ত্রী ঘোষিত অঞ্চল সভাপতি মজিবর রহমান বলেন,আজ সকালে তারা চুলকানির বাজারে ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে একটি দলীয় পর্যায়ের আলোচনা করার জন্য জমায়েত হয়েছিলেন, এমন সময় প্রাক্তন অঞ্চল সভাপতি ফারুক মন্ডল তার লোকজন এবং দুষ্কৃতী বাহিনী তাদের উপরে আক্রমণ করেন।

ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।আক্রমণ প্রতিহত করতে তার গোষ্টীর লোকেরাও পাল্টা জবাব দিয়েছে।পাল্টা অভিযোগ করে দেওচড়াই তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি ফারুক মন্ডল। তিনি বলেন, এদিন সকালে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী এলাকায় এসেছিলেন। তাকে দেখার জন্য গ্রামবাসীরা রাস্তায় বের হয়।এমন সময় স্বঘোষিত অঞ্চল সভাপতি মজিবুর রহমান এবং তার দুষ্কৃতী বাহিনী সেই নিরীহ মানুষদের ওপর অতর্কিত আক্রমণ চালায়। তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করে এবং মারধর করে।

এই ঘটনার তীব্র নিন্দা তিনি করেছেন। এবং ঘটনা টির পুলিশ এবং বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছেন। প্রায় তিন মাস থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দলে উত্তপ্ত দেওচড়াই গ্রাম পঞ্চায়েতের চুলকানীর বাজার ।

দফায় দফায় চলছে বাড়ি ভাংচুর এবং মারামারি । এদিনও তার ব্যাতিক্রম হল না । উল্লেখ্য প্রায় তিন মাস আগে কৃষ্ণপুর হাই স্কুলের মাঠে এক ফুটবল খেলার উদ্বোধন এ এসে দেওচড়াই অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি পরিবর্তন করেন রবীন্দ্র নাথ ঘোষ ৷ এরপর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দেওচড়াই এর বিভিন্ন এলাকা ।

অন্যান্য এলাকা শান্ত থাকলেও চুলকানির বাজারে গোষ্ঠী কোন্দল থামার নামই নেই । স্থানীয় এবং পুলিশ সূত্রে জানা গেছে এদিন দেওচড়াই গ্রাম পঞ্চায়েতের চুলকানির বাজারে ফারুক মন্ডল এবং মজিবর রহমানের দুই গোষ্ঠীর জমায়েত হয়।

এই জমায়েত কিছুক্ষণের মধ্যেই হিংসায় পরিনত হয়৷ দুই পক্ষই বাশ, লাঠি নিয়ে একে অপরের ওপর ঝাপিয়ে পরে। এই সময় চুলকানির বাজার তৃণমূল কংগ্রেসের সামনে থাকা ১০টি বাইকে ভাংচুর করা হয়।