Ad
কোচবিহার

মোদী সরকারের উত্তরবঙ্গের উন্নয়নের চেষ্টাকে বাস্তবায়িত করতে দেয়নি তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত রাজ্য সরকার, কোচবিহারে এসে এমনই অভিযোগ করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

কোচবিহার, ২৩ ডিসেম্বরঃ উত্তরবঙ্গের উন্নয়নে মোদী সরকারের চেষ্টাকে বাস্তবায়িত করতে দেয় নি তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত রাজ্য সরকার। শুধু তাই নয়, সাংসদ কোটার টাকাও খরচ করতে বাধা দেওয়া হয়েছে। কোচবিহারে এসে এমনই অভিযোগ করলেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রী তথা বিজেপির উত্তরবঙ্গের এই জোনের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল।

তিনি বলেন, “গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গকে বঞ্চিত করে রাখার জবাব রাজ্য সরকারকে দিয়ে দিয়েছে উত্তবঙ্গের মানুষ। দ্বিতীয় বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার মোদিজি এই এলাকার উন্নয়নে চেষ্টা করেছে। কিন্তু এখানকার সরকার করতে দেয় নি। সাংসদ কোটার টাকা যা সাংসদরা সরাসরি নিজেদের এলাকায় উন্নয়নের কাজে ব্যবহার করতে পারে, সেই উন্নয়নের কাজও করতে দেয় নি।”

Ad

তিনি আরও জানান, উত্তরবঙ্গের বিস্তৃন এলাকা পর্যটনের ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন করা সম্ভব। কিন্তু সেটা রাজ্য সরকার করে নি। যোগাযোগ ব্যবস্থা সেভাবে গড়ে ওঠে নি। বিমান পরিষেবা চালু করার জন্য বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামানিক চেষ্টা করলেও তা করতে দেওয়া হয় নি। প্রধানমন্ত্রী সড়ক যোজনায় যে সব রাস্তা হয়েছে, সেখানেও বোর্ডে প্রকল্পের নাম নেই বলেও অভিযোগ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তিনি কার্যত হুমকির সুরে বলেন, “সব বোর্ডে কেন্দ্রীয় সড়ক যোজনার প্রকল্পের নাম উল্লেখ করার জন্য কাজ ক্রবে বিজেপি।”

বিজেপি ক্ষমতায় আসলে মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন, সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান, বিজেপিতে আগে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়ে আসেন, তারপরে কে মুখ্যমন্ত্রী বা প্রধানমন্ত্রী হবেন, সেটা ঠিক করা হয়। কাজেই এখন এমন প্রশ্নের কোন প্রয়োজন হয় না। এরপরেই পিকের দুই সংখ্যার বেশী বিজেপি আসন পাবে না বলে যে মন্তব্য করেছেন সাংবাদিকদের সেই প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে বলেন, এখানে বিজেপি জয়ী হবে, তৃণমূল পরাজিত হবে। এরপরে পিকে অবসর এমনিতেই হয়ে যাবে, তাকে আর তাঁর পেশা ছাড়তে হবে না।”

বিজেপির কোচবিহার জেলা কার্যালয়ে ওই সাংবাদিক বৈঠকের পর কেন্দ্রীয় পর্যটন ও সংস্কৃতি মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল রাজবাড়ি সহ বেশ পর্যটন কেন্দ্র ঘুরে দেখেন।

আরও পড়ুন