Ad
কোচবিহার

কোচবিহারে অধ্যাপক উৎপল বর্মনের মৃত্যুর রহস্য জানতে ফরেনসিক রিপোর্টের দিকেই চেয়ে পরিবার

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

UBG NEWS, কোচবিহার: চলতি মাসের ১৮ তারিখ বন্ধ ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয়েছিলেন কোচবিহার এবিএন শীল কলেজ এর অধ্যাপক উৎপল বর্মন সহ পরিবারের মৃত দেহ।গোটা ঘটনার তদন্তে নেমে চাঞ্চল্যকর বেশ কিছু তথ্য উঠে এসেছে পুলিশের হাতে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ১২ পাতার একটি সুইসাইড নোট থেকে উৎপল বর্মনের অনলাইন লোন নেওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। একাধিক লোনে জর্জরিত উৎপল বাবু কেন নিজেকে এভাবে হত্যা করার সিদ্ধান্ত নিলেন সেই বিষয়ে সম্পূর্ণ পরিষ্কার এবং স্বচ্ছ ধারণা আদালতের সামনে তুলে ধরার ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞদের ওপর ভরসাকরতে হচ্ছে পুলিশকে।

Ad

এই ক্ষেত্রে হ্যান্ডরাইটিং এক্সপার্ট, যিনি সুইসাইড নোটের হাতের লেখার সঙ্গে উৎপল বাবুর পুরনো খাতাপত্র এবং কলেজের হাতের লেখার সামঞ্জস্য খোঁজার চেষ্টা করছেন।

ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা, তারা বিভিন্ন বৈদ্যুতিক মাধ্যমের গেজেট গুলি নিয়ে তার ভিতরে লুকিয়ে থাকা তথ্য অনুসন্ধানে চেষ্টা চালাচ্ছেন। পোস্টমর্টেম রিপোর্ট বিশেষজ্ঞরা, কীভাবে তিনি নিজে হাত বাঁধা অবস্থায় ফাঁসি দিতে পারেন এই সব ছোট ছোট বিষয়ে খতিয়ে দেখছে। সবশেষে সইবার সেল বিশেষজ্ঞ খোঁজার চেষ্টা করছেন তার অনলাইন গতিবিধি ধরতে। চারজন বিশেষজ্ঞের মতামতের ওপর ভিত্তি করে দাঁড়িয়ে আছে এই মৃত্যু রহস্যের সম্পূর্ণ গল্প।

কোচবিহার জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার জানান, গোটা ঘটনার পুনঃ তদন্ত না হওয়া পর্যন্ত পরিষ্কার তথ্য দেওয়া সম্ভব নয়। সম্পূর্ণ বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ আসার পরেই পুরো ঘটনা পরিষ্কার হবে। ইতিমধ্যেই বিশেষজ্ঞদের কাছে তাদের প্রয়োজনীয় এভিডেন্স গুলি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রে কিছুটা সময়ের প্রয়োজন। দ্রুত সত্য উদ্ঘাটন হবে।

আরও পড়ুন