ভুতুড়ে টাকা! কোথা থেকে আসছে, কিভাবে আসছে কেউ জানে না, চাঞ্চল্য কোচবিহারে

কোচবিহার, ৫ জানুয়ারিঃ আনন্দে আত্মহারা কোচবিহারের একাধিক ব্যাংক গ্রাহক, সকাল সকাল মোবাইলের একটি ছোট্ট মেসেজ হাতে নিয়ে ব্যাংকের সামনে লম্বা লাইন। টাকা তোলার লাইন। অথচ গ্রাহকদের কেউ বলতে পারছেন না টাকাটা এলো কোথা থেকে। এমনকি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ পর্যন্ত সন্দিহান। এমনই ভুতুড়ে কারবার ঘটছে কোচবিহার জেলার একটি বেসরকারি ব্যাংকে।

বেশ কিছুদিন থেকেই গ্রাহকদের একাউন্টে ঢুকেছে টাকা। নিতান্তই কম নয়, ১৬ হাজার থেকে শুরু করে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত। মঙ্গলবার সকালে এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনা পুনরায় ঘটলো কোচবিহার ১ নম্বর ব্লকের ধলুয়াবাড়ি ব্যাংকে। বিগত ২রা জানুয়ারি একই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল ঘুঘুমারি ব্যাংকে। সকাল থেকে টাকা তোলার জন্য কয়েক হাজার মানুষ ভিড় জমিয়েছে ব্যাংকের সামনে।

যদিও বা বিগত অভিজ্ঞতা থেকে জানা যায়, টাকা তুলতে দিচ্ছেনা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। আজকের ঘটনায় টাকা তুলতে আসা আমিনা বিবি জানান, মেসেজের মাধ্যমে তার অ্যাকাউন্টে ১৬ হাজার ৮০০ টাকা ঢুকেছে। অপর একজন জানান, তার একাউন্টে ৫০ হাজার ১০০ টাকা ঢুকেছে। তারা কোনও রকম লোনের জন্য আবেদন করেননি, তাহলে এই টাকা ঢুকছে কোথা থেকে প্রশ্ন উঠছে। কে বা কারা এই টাকা ব্যাংকের একাউন্টে ঢুকিয়ে দিচ্ছে তা নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

সূত্রের মাধ্যমে জানা গেছে, ব্যাংক কর্তৃপক্ষ নিজেরাই জানেন না টাকা আসছে কোথা থেকে। অর্থাৎ এই ভূতুরে টাকার সংস্থান খুঁজতে কালঘাম ছুটছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের। অন্যদিকে খুশিতে আত্মহারা সাধারণ গ্রাহকরা ব্যাংকে টাকা তুলতে গেলে অভিযোগ তাদের বলা হচ্ছে টাকা নেই। অর্থাৎ ব্যাংকে কোন রকম ক্যাশ টাকা নেই।

এই পরিস্থিতিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সাধারণ মানুষের বাকবিতণ্ডা স্বাভাবিক। বেশ কয়েকটি জায়গায় সামান্য উত্তেজনা তৈরী হলেও ব্যাংকের সামনে ভিড় রয়েছে প্রচুর।