Ad
কোচবিহার

দিনহাটায় প্রচারে আসলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য যুবনেত্রী সায়নী ঘোষ

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ , কোচবিহার : কোচবিহারের দিনহাটার নির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থীর হয়ে প্রচারে আসলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য যুবনেত্রী সায়নী ঘোষ । বাগডোগরায় তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন দিনহাটায় ফাইট কিছু হবে না । দিনহাটার উপনির্বাচনে আমরাই জিতব ।

অপরদিকে সায়নী ঘোষ মাথাভাঙ্গা হয়ে দিনহাটার উদ্দ্যেশ্যে যাবেন শুনে মাথাভাঙায় সায়নী ঘোষ স্বাগতম লেখা পোস্টার, হর্ডিং এ ভড়িয়ে ফেলে তৃনমূল নেতৃত্ব।

Ad

এদিন সায়নী ঘোষের সঙ্গে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের বিভিন্ন নেতা-নেত্রীরা দিনহাটার উদ্দেশ্যে গাড়ি করে সফর সঙ্গী হয়ে যাচ্ছেন। সকাল থেকেই সায়নী ঘোষ এর জন্য অপেক্ষা করছিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা। কিন্তু বেলা গড়াতেই সায়নী ঘোষের দেখা না পাওয়াতে অনেকেই মন খারাপ করে থাকেন। তবুও তারা দিনহাটার উদ্দেশ্যে কেউ কেউ রওনা দিয়েছেন সায়নী ঘোষের বক্তব্য শুনতে। আর কিছুক্ষণ বাদেই দিনহাটায় সায়নী ঘোষ বক্তব্য রাখবেন। সেখানে উপনির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হয়ে লড়ছেন উদয়ন গুহ। বিজেপির হয়ে লড়ছেন অশোক মন্ডল, ও বামফ্রন্টের আব্দুর রউফ। আগামী ৩০ শে অক্টোবর দিনহাটার উপনির্বাচন। দেখা যাক সায়নী ঘোষ উপ-নির্বাচন উপলক্ষে কি বক্তব্য রাখেন। এখন সেটাই এখন শোনার বিষয়।

সায়নী ঘোষের এই কথার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামানিক দিল্লি থেকে ফিরে বাগডোগরায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে দেন । তিনি ভবানীপুরের প্রসঙ্গ তুলে ধরে অভিযোগ করে বলেন , ভবানীপুরে নির্বাচনের সময় দেখেছি ভয় দেখিয়ে সাধারণ মানুষ যাতে ভোটদান থেকে বিরত থাকে সেই চেষ্টা করা হয়েছে । প্রায় ৯০ হাজার ভোটার তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে পারেনি ।

নিশিথ প্রামাণিক দাবী করেন কোচবিহারের মানুষ এখনো বিজেপির সাথেই আছেন, আর তা প্রমান করে দেবে এই ভোটের ফলাফল।

আরও পড়ুন