টানা তিন ধরে পানীয় জল না পাওয়ায় ক্ষোভে ফুঁসছেন কোচবিহার শহরের বাসিন্দারা

কোচবিহার, ৮ জুনঃ টানা তিন ধরে পানীয় জল না পাওয়ায় ক্ষোভে ফুঁসছেন কোচবিহার শহরের ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা। তাঁদের অভিযোগ, জেসিপি দিয়ে নিকাশি নালার জঞ্জাল পরিষ্কার করতে জলের লাইনের মেইন পাইপ ফাটিয়ে দেওয়া হয়। তারপর থেকে ওই পাইপ আর ঠিক না করায় এলাকার বাসিন্দারা পানীয় জল থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে তাঁদের।

ওই এলাকার বাসিন্দা অভিজিৎ চন্দ বলেন, “১৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের হয় অন্য কোন ওয়ার্ড থেকে জল সংগ্রহ করে আনতে হচ্ছে, নতুবা ড্রাম কিনে পিপাসা মেটাতে হচ্ছে। স্নান বা জামা কাপর ধোঁয়া তো কার্যত বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এভাবে একটা এলাকার বাসিন্দারা আর কতদিন ধরে চলবে?”

কোচবিহার পুরসভার স্যানিটারি ইন্সপেক্টর বিশ্বজিৎ রায় অবশ্য বলেন, “পাইপ ফেটে যাওয়ার পরেই যাতে ওই এলাকায় জলের সমস্যা না হয়, তার জন্য ওই এলাকায় জলের ট্যাংক পাঠানো হয়েছে। যতক্ষণ পর্যন্ত পাইপ সারাই করে পানীয় জল সরবরাহ ঠিক না করা হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত ট্যাংক পাঠিয়ে পানীয় জল দেওয়া হবে। এছাড়া ওই পাইপ সারানোর কাজ শুরু হয়েছে। খুব শীঘ্র ওই কাজ সম্পূর্ণ হয়ে হয়ে যাবে।“

কোচবিহারে পানীয় জলের সমস্যা মেটাতে প্রায় প্রত্যেক ওয়ার্ডে পাম্প বসানোর কাজ করা হয়েছে। ১৫ নম্বর ওয়ার্ডেও দুটি পাম্প রয়েছে, কিন্তু সেখানকার বাসিন্দাদের অভিযোগ ওই দুটি পাম্প থেকে অন্য ওয়ার্ডের বাসিন্দারা পানীয় জল পেলেও ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা সেখানকার জল পান না।

এলাকার বাসিন্দা অভিজিৎ চন্দ বলেন, “কি কারণে ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে থাকা দুটি পাম্প থেকে অন্য ওয়ার্ডে জল সরবরাহ করা হলেও আমাদের ওয়ার্ডে কেন দেওয়া হচ্ছে না, সেটা বুঝতে পারছি না।“