একদিকে প্লাস্টিক বন্ধের ডাক মুখ্যমন্ত্রীর অন্যদিকে সরকারি অনুষ্ঠানে ব্যবহার হচ্ছে প্লাস্টিক

UBG NEWS, কোচবিহারঃ একদিকে যখন গোটা বাংলা থেকে প্লাস্টিক বর্জনের ডাক দিচ্ছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিক তার অন্যদিকে দেখা গেল অন্য চিত্র। কোচবিহার জেলা পুলিশের বিজয়া সম্মিলনী, উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী সহ আধিকারিক, বিধায়ক, জেলা পরিষদ সদস্যরা। আর সেখানেই সাধারণের জল খাওয়ার জন্য প্লাস্টিকের গ্লাস ব্যবহার করা হল নির্দ্বিধায়।

যদিও এই প্রসঙ্গে মুখ খুলতে নারাজ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন আধিকারিকরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক আধিকারিক জানান, খাওয়া-দাওয়ার বিষয়টা পানীয় জল সমেত স্থানীয় এক খাদ্য সরবরাহ সংস্থা কে দেওয়া হয়েছিল, তারাই ব্যবস্থা করেছে।

বিষয়টি প্রশ্ন চিহ্ন তুলে দিয়েছে প্রশাসনের দিকেই। প্রশ্ন উঠছে সরকার যখন নিজেই তাদের নিজস্ব অনুষ্ঠানে প্লাস্টিকের গ্লাস ব্যবহার করছে তখন সাধারণ মানুষকে আর কিছুই বলার থাকছে কি?

অনুষ্ঠানে উপস্থিত আমন্ত্রিত অতিথি এই বিষয়ে মন্তব্য করে বলেন, প্লাস্টিকের গ্লাস না রেখে কাগজের গ্লাস রাখা উচিত ছিল। সাথে তিনি এও বলেন,তাড়াহুড়োতে হয়তো পুলিশকর্তারা বিষয়টি দেখে উঠতে পারেননি।

বিজয়া সম্মিলনীর মঞ্চে দাঁড়িয়ে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বারবার নিজের বক্তব্যে প্লাস্টিক মুক্ত কোচবিহার গড়ার আহ্বান জানিয়েছেন। প্লাস্টিক মুক্ত পরিবেশ গড়ার আহ্বান জানিয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মনও, কিন্তু তাদের সামনেই সরকারি অনুষ্ঠানে প্লাস্টিকের গ্লাসে জল খাওয়ার ব্যবস্থা করে তাদের সম্মান কে কতখানি রক্ষা করতে পারল পুলিশ বিভাগের আধিকারিকরা সেই প্রশ্ন উঠছে কোচবিহার বাসীর মনে।

কোচবিহার শহরের চতুর্দিকে চোখ ঘোরালেই কোচবিহার পৌরসভার তরফে দেখতে পাওয়া যায় প্লাস্টিক মুক্ত পরিবেশ গড়ার ব্যানার-পোস্টার। শারদ উৎসবের আগে প্লাস্টিক বর্জন করার লক্ষ্য নিয়ে সচেতনতা অনুষ্ঠান করেছে পৌরসভা, এখন প্রশ্ন যেখানেই সরকারি আধিকারিকরাই সচেতন নয় সেখানে সাধারণ মানুষের সচেতনতা কতখানি প্লাস্টিক মুক্ত কোচবিহার গড়ে তুলতে পারবে তার যথেষ্ট চিন্তার কারণ। আদতেও প্লাস্টিক মুক্ত কোচবিহার গড়ে উঠবে কিনা তা শুধু সময়ের অপেক্ষায় নয় সকল স্তরের মানুষের সচেতনতার অপেক্ষায় রয়ে গেল।