Ad
কোচবিহার

আফগানিস্তানের থেকেও দিনহাটায় বেশী সন্ত্রাস, গীতালদহ গুলি কান্ডে সরকারকে বিঁধলেন মিহির গোস্বামী

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

“দিনহাটায় বর্তমানে যিনি তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্বে আছেন উদয়ন গুহ, তিনি দীর্ঘদিন থেকেই দিনহাটার অবস্থা আফগানিস্তানের থেকেও বেশি সন্ত্রাস কবলিত করে রেখেছেন” – শনিবার রাতে দিনহাটা গীতালদহ তে গুলি কাণ্ডে পরিপ্রেক্ষিতে এমনটাই মন্তব্য করলেন কোচবিহারের নাটাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তথা রাজ্যের বিজেপি নেতা মিহির গোস্বামী। তিনি আরো বলেন, উদয়ন গুহর এই তালিবানি শাসন এর কারণে তৃণমূল কংগ্রেসের যারা পুরনো দিনের নেতৃত্ব ছিল তারা কোণঠাসা। শুধু তাই নয় বাছাই করে একসময়ের বামফ্রন্ট হার্মাদদের তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করিয়ে তাদের মাধ্যমে সন্ত্রাস তৈরি করা হচ্ছে দিনহাটা তে। তিনি মন্তব্য করে বলেন, আজকে যারা দিনহাটায় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্ব তারা তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা লগ্ন এর ইতিহাস জানেন বলে মনে হয় না। নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য তারা তৃণমূল কংগ্রেস এসেছেন উদয়ন গুহর নেতৃত্বে। তারাই অঙ্গুলিহেলনে সন্ত্রাস তৈরি করে যাচ্ছে দিনহাটার বুকে। রাজনৈতিক এই সন্ত্রাসের কারণে শুধুমাত্র বিরোধী শিবিরের ক্ষতি হচ্ছে তাই নয়, ক্ষতি হচ্ছে তৃণমূলের অন্দরে ও। নিজেদের কর্মীদের নিজেরাই ঘৃণ্য চক্রান্তের শিকার করছে। এই অবস্থার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে বিজেপি।

প্রসঙ্গত, শনিবার রাতে দিনহাটা গীতালদহ এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত হয় দুই তৃণমূল কর্মীর। একই সাথে আগত 6 জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গোষ্ঠী কোন্দল এর প্রসঙ্গ উড়িয়ে দিলেও ঘটনা অস্বীকার করতে পারেনি তৃণমূল নেতৃত্ব। বারবার দিনহাটা কেন রাজনৈতিক সন্ত্রাস-কবলিত হচ্ছে তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। 2021 বিধানসভার সাধারণ নির্বাচনের সময় কেউ দিনহাটা সন্ত্রাসের কারণে শীর্ষে উঠে এসেছিল সংবাদমাধ্যমে। এইবার পুনরায় উপনির্বাচন, এইবার কি একই পরিস্থিতি থাকবে? প্রশ্ন থাকছে।
একদিকে নির্বাচন অন্যদিকে দুর্গাপূজা সর্বোপরি রাজনৈতিক সন্ত্রাস, সাধারণ মানুষ ভীত-সন্ত্রস্ত। দিনহাটার বেশিরভাগ গ্রামের সন্ধ্যার পরে ঘরের বাইরে বেরোন না গ্রামবাসীরা এমনটাই তথ্য পাওয়া যাচ্ছে বিরোধী শিবির থেকে। এমনকি অভিযোগ এতটাই গুরুতর যে আসন্ন উপ নির্বাচনে বিজেপির হয়ে গ্রামাঞ্চল থেকে বিজেপির কোন নেতা দলের কোনো কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করলে তার মারাত্মক বিপদ হতে পারে। তবে মিহির গোস্বামী দাবি করে বলেন, সাধারণ মানুষ যদি ভোট দিতে পারে তাহলে উপনির্বাচনেও পরাজয়ের মুখ দেখতে হবে উদয়ন গুহ কে।
যদিওবা এই প্রসঙ্গে উদয়ন গুহোর কোন মন্তব্য এখনো পাওয়া যায়নি।

Ad

আরও পড়ুন