চিকিৎসার গাফিলতিতে রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজের মাতৃমা বিভাগ, পরিস্থিতি সামলাতে পুলিশের লাঠিচার্জ

কোচবিহারঃ রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছাড়ল কোচবিহারে। জানা যাচ্ছে, শুক্রবার সকালে কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজের মাতৃমা বিভাগে চিকিৎসার গাফালতির অভিযোগ তুলে মৃত ওই প্রসূতির পরিবারের লোকজন।

এরপরই পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে, তাঁরা দফায় দফায় হাসপাতাল চত্বরে ভাংচুর চালায়। এরপরই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে কোচবিহার কোতায়ালি থানার আইসি সৌমজিৎ রায়ের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে মোতায়ন রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

পরিবার সূত্রে খবর, গত রবিবার প্রসবের যন্ত্রনা নিয়ে কোচবিহার ১ নং ব্লকের শুটকাবাড়ির বাসিন্দা মৃত খাদিজা খাতুন কোচবিহার মাতৃমাতে ভর্তি হন। এরপরই সোমবার তাঁর একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়।

অভিযোগ, এরপর থেকেই কোন রকম চিকিৎসক দেখতো না। ওই বিভাগে কর্মরত নার্সদের সাথে কোন কথা বলতে গেলেও দূর ব্যাবহারের শিকার হতে হত বলেও অভিযোগ করেছেন পরিবারের লোকেরা। এরপরে সোমবার সকালে মৃত ওই প্রসূতি অসুস্থ বোধ করায় নার্সদের ডাকা হয়। এরপরই নার্স এসে একটি ইনজেকশন দিলে কিছুক্ষণ বাদেই ওই প্রসূতি মৃত্যু ঘটে বলে জানিয়েছেন পরিবারের লোকেরা। এরপরই মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই পরিবারের লোকজন মাতৃমায় ভাংচুর চালায়।

ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে কোতোয়ালি থানার পুলিশ বাহিনী। এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান পার্থপ্রতিম রায়ও ঘটনাস্থলে পৌঁছান। তিনি বলেন, ‘একটি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। কি কারণে মৃত্যু হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যাঁরা ভাঙচুর করেছেন তাঁদের বিরুদ্ধে প্রশাসন আইনি ব্যবস্থা নেবে।’