Ad
কোচবিহার

বিজেপি দল করোনার মত এক ধরনের ভাইরাস,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই ভাইরাসের প্রতিশোধক বলে দিনহাটার মঞ্চ থেকে বিজেপিকে কটাক্ষ অভিষেকের

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ,দিনহাটা: উদায়ন গুহের হয়ে সোমবার দিনহাটা সংহতি ময়দানে ভোটপ্রচারে আসেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই মঞ্চ থেকেই ভারতীয় জনতা পাটি কে ভাইরাসের সাথে তুলনা করে কটাক্ষ করেন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, করোনার ভ্যাকসিন কারা কারা নিয়েছেন হাত তুলুন, যারা দুটো ভ্যাকসিন নিয়েছেন তারা হাত তুলুন। কেন এই কথা বলছি করণা ভাইরাসের প্রতিষেধক এর নাম যেমন কভিড শিল্ড বা কো-ভ্যাকসিন তেমনি ভারতীয় জনতা পার্টি দেশের জন্য একটি ভাইরাস আর সেই ভাইরাসের একটি প্রতিশোধক তার নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Ad

করোনাভাইরাস এর জন্য যেমন আপনাকে দুটিডোজ নিতে হয় তেমনি এই ভারতীয় জনতা পার্টির মত ভাইরাসের থেকে বাজতেও আপনারা দুটি ভোট দিবেন একটি আগামী ৩০ তারিখ আর একটি তুলে রাখবেন ২০২৪ এর জন্য।

মনে রাখবেন এই ভাইরাস থেকে দেশ কে বাঁচানোর জন্য একমাত্র ক্ষমতা তৃণমূল কংগ্রেসের রয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই পারেন ভারত বর্ষ থেকে সাম্প্রদায়িক বিজেপিকে মুছে ফেলতে। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটাই ধর্ম, মানবিকতা। তাই ২০২৪ লোকসভা নির্বাচন হয়ে উঠুক বাংলার নেত্রীকে প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসানো নির্বাচন।

তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের কথায়, “দল আমাকে দায়িত্ব দিয়েছে। আগামী তিন মাসের মধ্যে আমরা গোয়া তেও শুন্য থেকে শুরু করে জোড়া ফুল ফুটাব।
যেখানে যেখানে বিজেপি মানুষকে উপেক্ষা করেছে, মানুষকে যন্ত্রণা দিয়েছে, গণতন্ত্র কেড়ে নিয়েছে সেখানেই লড়বে তৃণমূল।” অভিষেকের চ্যালেঞ্জ, “বিজেপিকে হারাতে পারে একমাত্র তৃণমূল। ত্রিপুরায় গেছি, গোয়াতে গেছি। উত্তরপ্রদেশেও যাব।”

এদিন তিনি নতুন স্লোগানও তোলেন – “গোটা দেশ বলছে, দেশ কি নেত্রী ক্যায়সি হো, মমতা দিদি য্যায়সি হো।”

আরও পড়ুন