Ad
কোচবিহার

শিশুদের সু-চিকিৎসার দাবিতে জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের সাথে দেখা করলেন কোচবিহার দক্ষিণ কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক নিখিল রঞ্জন দে

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

কোচবিহার: শিশুদের সু চিকিৎসার দাবি সহ একাধিক বিষয়ে মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক এর সাথে দেখা করলেন কোচবিহার দক্ষিণ বিধানসভা বিধায়ক নিখিল রঞ্জন দে। এদিন বিধায়কের সাথে উপস্থিত ছিলেন কোচবিহার জেলার কোষাধক্ষ্য বিরাজ বস সহ অন্যান্য বিজেপি কর্মীরা।

ইতিমধ্যে রাজ্যে প্রায় ৬ টি শিশুর মৃত্যুও হয়েছে। এই অবস্থায় শিশুদের সু-চিকিৎসার দাবিতে, সকলকে ভ্যাকসিনের আয়ত্তে আনা, বন্ধ নিশ্চয় যান সহ একাধিক দাবী নিয়ে কোচবিহার জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের সাথে দেখা করলেন কোচবিহার দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক নিখিল রঞ্জন দে।

Ad

শিশুদের সু-চিকিৎসার পাশাপাশি তারা কোচবিহার মাতৃমার সামনে শিশুদের আত্মীয় পরিজনেরা যে রাস্তার ওপর এই ঝড়বৃষ্টি, রোদ উপেক্ষা করে বসে থাকেন, রাত কাটান সেই ব্যপারেও তুলে ধরেন তারা।

বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে দক্ষিণ বিধানসভার বিধায়ক নিখিল রঞ্জন দে বলেন, শুধু নামেই মেডিকেল কলেজ হয়েছে বাস্তবে তা হয়নি। সারা রাজ্য জুড়ে যে অজানা জ্বরের প্রকোপ দেখা দিয়েছে তার থেকে ছাড় পায়নি কোচবিহার। কোচবিহার জেলার অনেক শিশু জ্বর সর্দি কাশি শ্বাসকষ্ট সহ বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে কোচবিহার জেলা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

আমাদের কাছে খবর আসছে একি বিছানাতে দু-তিনজন করে শিশু কে রাখা হচ্ছে। সেইসব শিশুগুলোর যাতে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয় সে নিয়ে কথা বললাম। একই সাথে জেলায় কত জনকে এখনো পর্যন্ত ভ্যাকসিন দেওয়া সম্ভব হয়েছে সেটিও জানতে চেয়েছি। পাশাপাশি দ্রুত যাতে সকলকে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনা যায় সে ব্যবস্থা করতে হবে।

কেননা বিজেপি করার অপরাধে বিজেপি কর্মীদের ভ্যাকসিন নিতে দেওয়া হচ্ছে না বলেও বিধায়ক জানান। কোচবিহার মাতৃমা নিশ্চয় জান পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। সে বিষয়েও ওনার সাথে কথা বলেছি শুধু তাই নয় পুজোর আগে যাতে তাদের বকেয়া টাকা দেওয়া হয় সেই কথাও জানিয়েছি। তবে মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক এর কাছ থেকে কোন সদুত্তর পাইনি। তিনি কথা দিতে পারছেন না কবে তাদের টাকা দেওয়া হবে। শুধু তিনি বলেছেন এই বিষয়ে স্বাস্থ্য ভবনে ও জেলা শাসকের সাথে কথা হচ্ছে।

আরও পড়ুন