কোচবিহার

কোচবিহারবাসির প্রাণের ঠাকুর মদনমোহনের ঐতিহ্যবাহী রাস উৎসবে ভোগ বিতরণ করলেন জেলা শাসক পবন কাদিয়ান

UBG NEWS : কোচবিহারবাসির প্রাণের ঠাকুর মদনমোহনের ঐতিহ্যবাহী রাস উৎসবে মহা ভোগের খিচুড়ি প্রসাদ বিতরণ করলেন দেবত্র ট্রাস্ট বোর্ডের সভাপতি তথা কোচবিহারের জেলাশাসক পবন কাদিয়ান।

শনিবার দুপুরে মদনমোহন মন্দির চত্বরে দাঁড়িয়ে ঠাকুর বাড়িতে আসা ভক্তদের নিজের হাতে ওই প্রসাদ বিতরণ করেন জেলাশাসক। ভিড়ের মধ্যে দাঁড়িয়ে জেলাশাসকের এভাবে প্রসাদ বিতরণ এর প্রশংসা করেছেন আট থেকে আশি সকলেই। জেলাশাসকের পাশাপাশি ট্রাস্ট বোর্ডের কর্মীরাও ভক্তদের হাতে এদিন প্রসাদ তুলে দেন।

জেলাশাসক পবন কাদিয়ান বলেন নিজের হাতে মানুষকে প্রসাদ দিতে পেরে খুব ভালো লাগছে। আমিও প্রসাদ খেয়েছি।

দেবত্র ট্রাস্ট বোর্ডের বড়বাবু জয়ন্ত চক্রবর্তী বলেন এদিন তিন হাজারের বেশি মানুষ মহা ভোগের প্রসাদ নিয়েছেন। প্রত্যেককে খিচুড়ি লাভরা ও পায়েস দেওয়া হয়েছে।

Ad

জেলাশাসকের হাত থেকে প্রসাদ খেয়ে দিনহাটার বাসিন্দা তাপসী বর্মন বলেন মেলা দেখতে এসে দুপুরে এমনিতেই খিদে পেয়ে গিয়েছিলো। এরপর মন্দিরে গিয়ে এরকম সুস্বাদু প্রসাদ পেয়ে তারা খুবই তৃপ্ত। পাশাপাশি তারা আরো খুশি এটা জেনে যে তাদের প্রসাদ দাতা স্বয়ং জেলাশাসক।

দিনহাটার আরেক বাসিন্দা তপনবাবু বলেন সত্যিই আজকে মেলা দেখতে এসে ষোল কলা পূর্ণ হল।

প্রসাদ পেয়ে সবিতা দত্ত বলেন, আগে প্রতিদিন পূজা শেষে সকলকে বসিয়ে প্রসাদ খাওয়ানো হতো। কিন্তু অতি মারির কারণে ভোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এরপর শুনেছিলাম যারা ভোগ প্রসাদ দেবেন তারাই ভোগ পাবেন। তবে আজ রাসচক্র ঘুরিয়ে বের হওয়ার সময় জেলাশাসক ভোগের প্রসাদ তুলে দিচ্ছেন এটা দেখে খুব ভালো লাগলো। উনার মত মানুষ দাঁড়িয়ে থেকে ভক্তদের হাতে প্রসাদ তুলে দিচ্ছেন সত্যি প্রশংসনীয়।

ট্রাস্ট সূত্রে জানা গিয়েছে রাস উৎসবের সময় প্রায় প্রতিবছরই ট্রাস্টের কর্মকর্তারা নিজেদের পকেটের পয়সা খরচ করে একদিন ভক্তদের খিচুড়ি প্রসাদ খাওয়ান। অন্যান্য বছর অন্তত 150 কেজি চাল ডালের খিচুড়ি করা হলেও এবার পরিমাণ বাড়িয়ে 200 কেজি করা হয়েছে। এছাড়া লাবরা পাইসও করা হয়েছে।

[ লেটেস্ট খবর এবং আপডেট জানার জন্য ফলো করুন ইউবিজি নিউজ ফেসবুক পেজ । ব্রেকিং নিউজ এবং ডেইলি খবরের আপডেটে পেতে যুক্ত হোন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে  ]