Ad
কোচবিহার

কোচবিহারে পনের দাবিতে শ্বাসরোধ করে গৃহবধূকে হত্যা করল স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোক, দোষীদের শাস্তির দাবিতে পুলিশ সুপারের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

কোচবিহার: পনের টাকা না পেয়ে এক গৃহ বধূকে শ্বাসরোধ করে খুন করার অভিযোগ উঠলো স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে। ঘটনা টি ঘটেছে কোচবিহার ১নং ব্লকের পুটিমারি ফুলেশ্বড়ি এলাকায়।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে গত আগষ্ট মাসের ১৫ তারিখ পিঙ্কি বর্মন কে তার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোক জন রাতের বেলায় শ্বাসরোধ করে খুন করেন। এরপর থানায় অভিযোগ দায়ের করলে স্বামী কে গ্রেফতার করলেও পরিবারে লোকদের এখনো গ্রেফতার করেনি পুলিশ।

Ad

তাই দোষীদের গ্রেফতারের দাবি সহ দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবিতে কোচবিহার পুলিশ সুপারের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ দেখালো অল ইন্ডিয়া মহিলা সংগঠন।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, পুটিমারি ফুলেশ্বরি গ্রামের পিঙ্কি বর্মণ নামে একটি মেয়েকে তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকেরা মিলে মেরে ফেলে। দীর্ঘদিন যাবত পণের দাবিতে মেয়েটির স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন অত্যাচার চালাত। বাপের বাড়ির থেকে পণ নিয়ে আসার জন্য জোড় করত। সেই পণ দিতে অস্বীকার করলে তার ওপর শারীরিক ও মানসিকভাবে অত্যাচার চালানো হত। মৃতার দিদির দাবী, পণ আনতে অস্বীকার করায় তার বোনকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে এবং এই খুনের জন্য দায়ি মৃতার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

মৃতার দিদি বলে, ৭ মাস আগে ভালো বেশে বিয়ে করে ছিলো পিঙ্কি ও নির্মলের। এর পর থেকেই টাকার জন্য চাপ দিতে থাকে। বিয়ের সময় দের লক্ষ টাকা ও ঘর সাজানোর জিনিস ও দিয়ে ছিলাম। কিন্তু এর পর থেকেই বাইক ও শিলিগুড়িতে জমি কেনার জন্য টাকা চাইতে থাকে। বোন রাজি না হওয়ায় উপর প্রাই অত্যাচার করতো। আমরা প্রতিবেশীর কাছে শুনেছি রাতে প্রচন্ড অশান্তি হয়েছিল। ওরাই আমার বোন কে মেরে ফেলেছে।

আরও পড়ুন