বসত বাড়ি থাকলেও নেই বাড়ি যাবার রাস্তা! বিপাকে কোচবিহারের ২টি পরিবার

কোচবিহার, ১ মার্চঃ থাকার বসত বাড়ি রয়েছে, তবে সেই বাড়িতে যাবার নেই রাস্তা! এমনটাই চিত্র উঠে এল কোচবিহার ১ নং ব্লকের হাড়িভাঙ্গা অঞ্চলের হাড়িভাঙ্গা গ্রামে।

গ্রামের বাসিন্দা সইদুল আলি, থাকার বসত বাড়ি রয়েছে তার, তবে সেই বাড়িতে যাবার কোনও রাস্তা নেই বলে অভিযোগ। একই অভিযোগ, সালেয়া বিবির’ও। তারও অভিযোগ, বসত বাড়ি থাকলেও বাড়ি যাবার রাস্তা নেই। আগে রাস্তা থাকলেও তা এখনও আর হাটা চলার উপযুক্ত না।

দীর্ঘ ২০ বছর ধরে রাস্তা বেহাল হয়ে পড়ে রয়েছে। এই বিষয়ে বার বার ব্লক স্থরে অভিযোগ জানালেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না বলে অভিযোগ। তাই বাধ্যহয়েই কৃষি জমির উপর দিয়ে যাতায়াত করতে হয় তাদের। বর্ষার দিনে যাতায়াত আরও কঠিন হয়ে ওঠে। কারন বর্ষার সময় জমিতে জল জমে থাকে ফলে সেই কোমর জল পাড় করেই বাড়ি থেকে ঢুকতে ও বেড়তে হয় তাদের।

এই বিষয়ে এলাকার প্রধান পঞ্চায়েতকেও জানানো হয় বলে দাবি করেন তারা। কিন্তু তাদের অভিযোগ, রাস্তা বানাতে তাদের কাছে মোটা টাকার দাবি করেন এলাকার শাসক দলের কয়েক জন নেতা। সামনেই বিধানসভা ভোট, গ্রামের ওই বাসিন্দাদের দাবি এইবার রাস্তা ঠিক না করা হলে ভোট বয়কট করবেন তারা।

এই বিষয়ে কোচবিহার ১ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ খোকন মিয়াঁ জানান, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপেরনায় শুরু হওয়া দিদিকে বলো কর্মসূচী, পাড়ায় পাড়ায় সমাধান, দুয়ারে সরকার প্রকল্পের মাধ্যমে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। গ্রাম থেকে শুরু করে শহরে রাস্তা ঘাট নির্মাণ থেকে পানীয় জল সহ বিভিন্য কাজ করা হয়েছে। আর অল্প কিছু কাজ বাকি রয়েছে খুব দ্রুত সেগুলিও সম্পূর্ণ করা হবে।