দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহর ‘…পদ্মফুলে যত মত তত পথ’ ফেসবুক পোস্ট ঘিরে রাজনৈতিক মহলে চাঞ্চল্য

ইউবিজি নিউজ : কিছুদিন আগেই তৃণমূলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়ে মন্ত্রিত্ব ছেড়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। সম্প্রতি রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও আকার ইঙ্গিতে বিদ্রোহের কথা জানান দিচ্ছেন। এরই মাঝে সোশ্যাল মিডিয়ায় ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট করলেন দিনহাটার তৃণমূল বিধায়ক উদয়ন গুহ (Udayan Guha)। তবে সেই পোস্টে নাম না করেই শুভেন্দু ও রাজীবকে আক্রমণ করেছেন তিনি। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক।

শুক্রবার রাতে উদয়ন ফেসবুকে নিজের ওয়ালে লেখেন, ‘হয় জলে [সেচ] অথবা জঙ্গলে [বন] নাহলে পদ্মফুলে যত মত তত পথ।’ আর এই পোস্ট ঘিরেই জল্পনা। আসলে এই পোস্টে রাজীব ও শুভেন্দুকেই আক্রমণ করা হয়েছে বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। ইস্তফার আগে পরিবহণের পাশাপাশি সেচ দফতরের মন্ত্রীও ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। অন্যদিকে, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বনমন্ত্রী। তাই উদয়নের পোস্টে সেচ ও ও বন মানে শুভেন্দু ও রাজীব বলেই অনুমান।

প্রসঙ্গত, গত বেশ কয়েকদিন ধরেই রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী ও রাজ্যের বনমন্ত্রী বন্দোপাধ্যায়কে নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরেও যার আঁচ এসে পড়েছে। দলের মধ্যে এক অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে বিধায়ক উদয়ন গুহর এই পোস্ট নতুন করে উস্কে দিল বিতর্ক। সরাসরি নাম না করলেও এই পোস্টের মাধ্যমে বিধায়ক উদয়ন গুহ শুভেন্দু অধিকারী ও রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা-ই বলেছেন বলে মত রাজনৈতিক মহলের। ‘জলে বা জঙ্গলে’ এই দুটি কথায় তিনি সেচ ও বনকে বুঝিয়েছেন।

পাশাপাশি ‘পদ্মফুল’ বলে তিনি এই পোস্টের মাধ্যমে ইঙ্গিত দিয়েছেন যে তাঁরা ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দিতে পারেন। ইতিমধ্যেই বিধায়ক উদয়ন গুহর এই পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। উল্লেখ্য, শুক্রবারই কলকাতার একটি সভায় যোগ দিয়ে রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘যত মত তত পথ’। নিজের পোস্টেও সেই লাইনটির উল্লেখ করেছেন বিধায়ক উদয়ন গুহ। তাঁর এই পোস্ট খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন অনেকে