Ad
কোচবিহার

সাবেক ছিটমহল বাত্রিগাছ এলাকার বাসিন্দারা কোনরকম সরকারি সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন না এই অভিযোগ তুলে দিনহাটা ১ নম্বর ব্লকের বিডিও অফিস চত্বরে বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

দিনহাটা- দিনহাটা ১ নম্বর ব্লকের সাবেক ছিটমহল বাত্রিগাছ এলাকার বাসিন্দারা কোনরকম সরকারি সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন না। এই অভিযোগ তুলে দিনহাটা ১ নং ব্লকের বিডিও অফিস চত্বরে বিক্ষোভ ডেপুটেশন দিল এলাকার বাসিন্দারা। সোমবার এই বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন দেওয়া হয়।

এদিনের এই বিক্ষোভ চলাকালীন সাবেক ছিটমহলের বাসিন্দারা বলেন, দীর্ঘ প্রায় ছয় বছর অতিক্রান্ত ছিটমহল বিনিময় হয়েছে। অথচ সাবেক ছিটমহল বাত্রিগাছ এলাকার বাসিন্দাদের জন্য এখনো পর্যন্ত কোনো রকম জব কার্ড চালু হয়নি। ফলে তারা এক’শ দিনের প্রকল্পের কাজ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

Ad

এছাড়াও এখনো কোন বিধবা ভাতা, বার্ধক্য ভাতার ব্যবস্থা করা হয়নি। অথচ ছিটমহল বিনিময়ের সময় বলা হয়েছিল নাগরিকত্ব পাওয়ার পর সমস্ত ধরনের সরকারি সুযোগ-সুবিধা সাবেক মহলের বাসিন্দারা পাবেন।

এদিন বাসিন্দাদের সবথেকে দিনহাটা ১ নম্বর ব্লকের বিডিও মদনমোহন মুর্মুর হাতে দাবি পত্র তুলে দেওয়ার সময় সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনা হয়। সমস্যাগুলি বিডিও মেটানোর আশ্বাস দিয়েছেন বলে সাবেক ছিটমহল বাসিন্দারা জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য ২০১৫ সালের ৩১ শে জুলাই মধ্যরাত্রে বিভিন্ন ছিটমহলের সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশি ছিটমহল বাত্রিগাছ ভারতীয় ভূখণ্ডের সঙ্গে মিশে যায়। এখানকার বাসিন্দারা ভারতীয় নাগরিকত্ব পান। এরপর এই এলাকায় রাস্তাঘাট বিদ্যুতায়ন প্রভৃতি উন্নয়নমূলক কাজ হলেও,এক’শ দিনের কাজ, বিধবা ভাতা, বার্ধক্য ভাতা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এই এলাকার বাসিন্দারা।

অবিলম্বে সরকারি সুযোগ সুবিধা দাবিতে এদিন দিনহাটা ১ নম্বর ব্লকের বিডিওকে ডেপুটেশন দিল বাত্রিগাছ সাবেক ছিটমহলের বাসিন্দারা।

আরও পড়ুন