রাষ্ট্রীয় সাংস্কৃতিক মহোৎসবে ক্ষতিগ্রস্ত হলো কোচবিহারের রাজবাড়ী, দায় কার !

ইউবিজি নিউজ, কোচবিহার : তিনদিনের রাষ্ট্রীয় মহোৎসব,আশঙ্কা ছিল ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে কোচবিহারের রাজবাড়ি। শেষমেষ তাই হল। মূল ফটকের সামনে কোচবিহার রাজবাড়ির বহু প্রাচীন রেলিং ভেঙে দিল লরি ।

রাজবাড়ী অসম্মান কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছে না কোচবিহারে জনসাধারণ।

বারংবার প্রশ্ন উঠেছিল কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগে রাষ্ট্রীয় মহোৎসব অন্য কোথাও করা যায় কিনা তাই নিয়ে। কিন্তু জেদের বশে কেন্দ্রীয় সরকার এই মহোৎসব রাজবাড়ীতে করেছিল।

যে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যপাল তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, সেখানে এই ধরনের ঘটনা কেন হল তাই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

শুক্রবার সকালে সম্পূর্ণ রাজবাড়ী পরিষ্কার হওয়ার পরে দেখা গেল মূল ফটকের একটি বড় অংশ ক্ষতিগ্রস্ত।

কোচবিহার মহারাজা নির্মিত কোচবিহার রাজবাড়ির মূল ফটকের সামনে থাকা লোহার রেলিং ভেঙে গেছে।

রাজবাড়ীর কর্মচারী সূত্রে জানা গেছে, বড় বড় মালবাহী লরি রান্না করার কারণে এই ক্ষতি হয়েছে। প্রকাশ্যে মুখ খুলতে নারাজ রাজবাড়ী কর্তৃপক্ষ।

বিষয়টিকে তীব্র কটাক্ষ করেছেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ।

তিনি মন্তব্য করেছেন, যা আশঙ্কা ছিল তাই হল। রাজবাড়ী অসম্মান কোচবিহারের বাসিন্দা হিসেবে অনুমোদন নিতে পারছিনা। রাজবাড়ী কে বাদ দিয়ে অন্য কোথাও এই মহোৎসব করা যেত।কেন্দ্রীয় অবমাননা শিকার হয়েছে রাজবাড়ী। কিভাবে এই ফাটল পুনর সংস্কার হবে তাই নিয়ে এখনো পর্যন্ত মুখ খোলেনি রাজবাড়ী কর্তৃপক্ষ।

তবে বিষয়টিকে খুব ভালোভাবে দেখছেনা কোচবিহার।

ইতিমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে আন্দোলনের পথে হাঁটছে দি গ্রেটার কোচবিহার পিপলস অ্যাসোসিয়েশন।

অ্যাসোসিয়েশনের কর্ণধার বংশী বদন বর্মন বলেন, রাজবাড়ীতে অনুষ্ঠান করা নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ গড়ে তুললেও শেষমেষ কেন্দ্রীয় চাপে তা বন্ধ হয়েছে। যত্রতত্র পড়ে থাকা নোংরা, আবর্জনার পাশাপাশি রাজবাড়ির এই ক্ষতি ভবিষ্যতে প্রশ্নচিহ্নের মুখে দাঁড় করাবে কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রক কে।