ভোট পরবর্তী হিংসায় দিনহাটায় খুন বিজেপি কর্মী, গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে ভাঙচুর পঞ্চায়েত সদস্যার বাড়ি

UBG NEWS, দিনহাটা- তৃণমূল ও বিজেপি দুই দলের সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়াল দিনহাটা ১ নম্বর ব্লকের পেটলা গ্রাম পঞ্চায়েতের জমাদারবস এলাকায়।

সংঘর্ষে একজনের মৃত্যু এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়। আহতদের মধ্যে ছয় জনের অবস্থা গুরুতর। তাদের দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মৃত ওই যুবকের নাম হারাধন রায়(৩০) বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, দিনহাটা ১ নম্বর ব্লকের পেটালায় নিহত বিজেপি কর্মীর নাম হারাধন রায়। অভিযোগ তাঁকে তৃনমূল কংগ্রেসের দুষ্কৃতীরা পিটিয়ে খুন করেছে। এর আগে গণনার দিন সন্ধ্যায় শীতলখুচির ছোট শালবাড়ি এলাকায় মানিক মৈত্র বলে এক যুবককে গুলি করে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। বিজেপির দাবি, মানিক মৈত্র তাঁদের কর্মী ছিলেন। তৃনমূলের দুষ্কৃতীরা তাঁকে গুলি করে খুন করেছে।

এছাড়াও গতকাল রাতে দিনহাটা ২ নম্বর ব্লকের গোবরা ছড়া নয়ারহাট এলাকায় তৃনমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য ভারতী নন্দীর বাড়িতে একদল দুষ্কৃতি হামলা চালিয়ে ব্যাপক লুটপাট, ভাঙচুর এমনকি তাঁদের একটি বিলাসবহুল গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় বলে অভিযোগ।

এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, নির্বাচনের আগে ভারতী নন্দীর স্বামী তৃনমূল নেতা বাবলা নন্দীকে দল বিরোধী কাজের অভিযোগ তুলে দলের জেলা নেতৃত্ব শোকজ করে। তারপর ভোট পরবর্তী হিংসায় তাঁর বাড়িতে হামলার ঘটনায় গোষ্ঠী কোন্দলের জেরেই হয়েছে বলে স্থানীয় বাসিন্দারা মনে করছেন।

নির্বাচন এর পর কোচবিহার জেলা জুড়ে হিংসা বন্ধের দাবি জানিয়ে গতকালই বিজেপির এক প্রতিনিধি দল কোচবিহার জেলা শাসকের সাথে দেখা করে।