তৃনমূল করার অপরাধে কোচবিহারে দোকান ভাঙচুর ও লুটপাঠ করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে

কোচবিহার, ৫ মেঃ তৃনমূল করার অপরাধে দোকান ভাঙচুর ও লুটপাঠ করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার ১ নং ব্লকের চান্দামারি গ্রাম পঞ্চায়েতের কার্গিল বাজার এলাকায়। ওই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়।

তৃনমূলের অভিযোগ, ওই এলাকায় লোকসভা ভোটের পর থেকে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এলাকায় তৃনমূল কর্মীদের উপর আক্রমণ ও হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। তারপরেও আমরা তৃনমূল কংগ্রেস করে যাচ্ছি। কিন্তু বিধানসভা নির্বাচনে হওয়ার পর তৃনমূল কংগ্রেস হেরে যায়। তারপর থেকে বিজেপি এলাকায় নানা ভাবে অত্যাচার করছে। কিন্তু আজ সকাল থেকে জানা যাচ্ছে ৪০-৫০টি তৃনমূল পরিবার ঘর ছাড়া। তারা পালিয়ে বেড়াচ্ছে বিজেপির ভয়ে। আজ সকালে কার্গিল বাজারে একটি দোকান ভাঙচুর করেছে।

তৃনমূল কর্মী তথা দোকানের মালিক সায়েদ আলি বলেন, সকালে দোকান খুলেছিলাম। তারপর ১০ পর্যন্ত দোকান করার পর বন্ধ করে বাড়ি এসেছিলাম। স্থানীয় ৭০-৮০ জন বিজেপির কর্মীরা এসে আমার দোকান ভাঙচুর করে টাকা পয়সা, মালপত্র,অন্যান্য জিনিস পত্র লুঠ করে নিয়ে যায়। তাও আনুমানিক টাকা পয়সা ও মালপত্র সহ ৪০ হাজার টাকার মতো ছিল। সবটাই লুঠ করে নিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, আমরা আতঙ্কে রয়েছি প্রায় ৪০-৫০টি পরিবার। আমরা এই মুহূর্তে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে রয়েছে। দলের নেতাদের বিষয়টি জানা হয়েছে, তারা আশ্বাস দিয়েছে একটা ব্যবস্থা করার। এই এলাকায় আমরা ৪০-৫০টি তৃনমূল পরিবার রয়েছে। সেটাই আমাদের সবচেয়ে ভয়ের ব্যাপার। পুলিশ প্রশাসনের কাছে আমাদের অনুরোধ এই পরিবার গুলিকে বাঁচান। না হলে বিজেপির ওই হার্মাদ বাহিনী আমাদের মেরে ফেলবে।