বাইসনের পরে এবার চিতা বাঘের আতঙ্ক, উত্তাল কোচবিহার ১ নম্বর ব্লকের সাতমাইল

ইউবিজি নিউজ, কোচবিহার : বুধবার সারা দিন ১ নম্বর ব্লকের টাপুরহাট থেকে শুরু করে চিলকির হাট চান্দামারী পর্যন্ত দাপিয়ে বেড়িয়েছে তিনটি বাইসন।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পুনরায় চিতা বাঘের আতঙ্ক দেখা দিল এলাকায়।

সকালবেলা কোচবিহার ১ নম্বর ব্লকের সাতমাইল এলাকার কাঁটামারী গ্রাম পঞ্চায়েতে স্থানীয় বাসিন্দারা একটি মাঝারি আকারের চিতাবাঘ দেখতে পাই বলে শোরগোল ওঠে।

স্থানীয় বাসিন্দা মোকসেদুল মিয়া, রাজিব বর্মন বলেন ভোর ছয়টা- 6:30 টা নাগাদ বাঘের গর্জন শোনা যায় এলাকায়।তারা বেরিয়ে দেখে পার্শ্ববর্তী বাঁশঝাড়ের পেছনদিকে থেকে ছুটে চলে যাচ্ছে একটি চিতাবাঘ।

বিষয়টি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। কিছুক্ষণের মধ্যেই পার্শ্ববর্তী এলাকা বাঘমারা থেকে চিতাবাঘের অবস্থান এর খবর আসে।

স্থানীয় সূত্রে আতঙ্ক ওঠে একটি নয় দুই থেকে তিনটি চিতাবাঘ ঘুরে বেড়াচ্ছে এলাকায়। ইতিমধ্যেই এলাকায় উপস্থিত হয়েছেন বনদপ্তর আধিকারিকরা। এই এলাকায় চিতা বাঘ আসতে পারে বলেও স্বীকৃতি দিয়েছেন তারা।

কোচবিহারে চিলাপাতা এবং জলদাপাড়া অভয়ারণ্য হওয়ার কারণে অনেক সময়ই বন্য পশু খাদ্যের খোঁজে শহরাঞ্চলে প্রবেশ করে। দুই হাজার কুড়ি সালের প্রথম দিকে কোচবিহার শহরের চিতাবাঘ ঘুরে বেড়ানোর আতঙ্ক ছড়িয়ে ছিল।

বন দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে, প্রাণীটি চিতাবাঘ না হয় লেপার্ড ক্যাট হতে পারে। কারণ সম্প্রতি কোচবিহার সংলগ্ন প্রতিটি অভয় অরণ্য এই নতুন নতুন বন্যপ্রাণীর বসতি স্থাপন করেছে। এদের মধ্যে লেপা ক্যাট অন্যতম। তবে শেষ পাওয়া খবরে এখনো পর্যন্ত বাঘের কোনো খোঁজ পায়নি বনদপ্তর।

আতঙ্ক বজায় থাকলে এলাকায় বাঘ ধরার খাঁচা বসাতে হতে পারে বলে দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে।