দিনহাটার বুড়িরহাটে বিজেপি-তৃনমূল সংঘর্ষ, আহত ৩

UBG NEWS: বিধানসভার ভোট যতই এগিয়ে আসছে ক্ষমতা ধরে রাখা ও ছিনিয়ে নেওয়ার লড়াই কে ঘিরে ক্রমেই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে দিনহাটার রাজনীতি। থামছেই না তৃণমূল বিজেপির লড়াই।

ফের মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তৃণমূল ও বিজেপি দলের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল দিনহাটার বুড়িরহাট এলাকা। ওই ঘটনায় একটি মোটর বাইক ভাঙচুর ছাড়াও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে দুজন দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি। একজনকে পুলিশ আটক করেছে। এই ঘটনায় একদল অপর দলের বিরুদ্ধে অভিযোগের তির ছুঁড়ে দিয়েছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে দিনহাটার বুড়িরহাট এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা বাইক মিছিল করছিল। সেই সময় তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীদের মধ্যে বচসা বাধে। তারপরে দুই দলের লোকজন জরো হতে শুরু হয়। পরবর্তী সময়ে দুই দলের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। তাতে বেশ কয়েকজন আহত হয় বলে অভিযোগ। পরে তাদের মধ্যে ২ জনকে দিনহাটা মহকুমা হাস্পাতালে ভরতি করা হয়। পরে খবর পেয়ে সাহেবগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থল থেকে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এদিন এবিষয়ে তৃণমূলের বুড়িরহাট অঞ্চল সভাপতি আব্দুল সাত্তার অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার রাতে সঞ্জীব বর্মন নামে এক কর্মী সহ দুইজন বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিল। সেই সময় কিছু বিজেপি আশ্রিত কিছু দুষ্কৃতি আমাদের ওই দুই কর্মীকে আটক করে মারধর করেন এবং তাদের মোটর বাইকটি ভাঙচুর করে। ওই ঘটনার ফলে সঞ্জীব বর্মন সহ দুই তৃণমূল কর্মী বর্তমানে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

অপরদিকে স্থানীয় বিজেপি নেতা প্রদীপ বর্মন বলেন, বুড়িরহাট এলাকায় তৃণমূলের বাইক রেলি চলছিল। সেই সময় রেলি থেকে একদল তৃণমূল কর্মী বিজেপি কর্মী অলক বর্মনের বাড়িতে গিয়ে তাকে মারধর করে। পরে তাকে বামনহাট প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা করানো হয়। পুলিশ সূত্রে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, বুড়িরহাট এলাকায় একটা ঝামেলা হয়েছে। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। ওই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করা হয়েছে। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।