Ad
বিধানসভা নির্বাচন-২০২১রাজ্য

নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের কড়া নির্দেশ কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ব্যুরো : নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করার পাশাপাশি কোভিড মুক্ত নির্বাচন করা নির্বাচন কমিশনের কাছে এখন বড় চ্যালেঞ্জ। সেইমতো সব ব্যবস্থা থাকবে বললেও রাজনৈতিক নেতা নেত্রীদের উদ্দেশ্যে কোভিড পরিস্থিতির সতর্কতাগুলো মেনে চলার আবেদন জানানো হয়। তবে নির্বাচন ঘোষনা হওয়ার পর থেকেই কিছু রাজ্যে যেভাবে আইন শৃংখলার অবনতি হচ্ছে তাতে উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন তাই এ সব ব্যাপারে জেলার পুলিশ সুপার ও জেলা শাসকদের কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নির্বাচনের দিন থেকে ৭২ ঘন্টা আগে বাইক মিছিল পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে জানান মূখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা। রাজ্যে নির্বাচনের দিন ঘোষনা হওয়ার পর কলকাতায় কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ সমস্ত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার পর আসাম হয়ে শিলিগুড়ি আসেন। তবে কোথাও কোনো সাংবাদিক বৈঠক না করলেও বুধবার শিলিগুড়িতে এক সাংবাদিক বৈঠক করেন মূখ্য নির্বাচন কমিশনার।

Ad

রাজ্যে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমশনের ফুল বেঞ্চ উপস্থিত থাকার সময়ই দিনহাটায় বিজেপি নেতার রহস্য মৃত্যু সহ হিংসাত্মক ঘটনা ঘটে। বিষটি নজর এড়ায় না নির্বাচন কমিশনের। সুনীল অরোরা জানান দিনহাটার ঘটনায় কমিশনের তরফে বিশাল পুলিশ বাহীনি ঘটনার পর্যবেক্ষণে পাঠানো হয়েছে। তারা সমস্ত বিষয় খতিয়ে দেখে রিপোর্ট দেবে সেই রিপোর্ট অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে কমিশন।

সেই সঙ্গে সম্প্রতি রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বোমা বিস্ফোরন সহ আইন শৃংখলার অবনতির ও দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটেছে সে ব্যাপারেও কমিশন নজর রাখছে। সেইমতো জেলা শাসক, পুলিশ সুপারদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিটা ক্ষেত্রে পর্যবেক্ষক হিসেবে থাকছে রাজ্যের প্রতিনিধিরা। তবে গোটা বিষয়ের ওপর নির্বাচন কমিশনের কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকদেরও নজর থাকবে।

তিনি আরও জানান সম্প্রতি একজন সাধারণ পর্যবেক্ষক একজন মহিলা আধিকারিকের সাথে দুর্ব্যবহার করার জন্য তাকে অপসারিত করা হয়েছে। পরবর্তিতে তাকে সাসপেন্ড করে তার বিরুদ্ধে চার্জশীট দেওয়া হবে। তবে অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করার ক্ষেত্রে কেনো স্তর থেকে যদি কোনো প্রতিবন্ধকতা বা গাফিলতি আসে তাহলে সে ব্যাপারেও কমিশন কঠোরভাবে পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

বিমল গুরুংএর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য একাধিক মামলা থাকা সত্বেও নির্বাচনের আগে দীর্ঘদিন ধরে গা ঢাকা দিয়ে থাকা সত্বেও নির্বাচনের আগে শিলিগুড়িতে রাজ্য সরকারের নিরাপত্তার বেষ্টনিতে রয়েছে বিমল গুরুং। সেই প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মূখ্য নির্বাচন কমিশনার বলেন, “আমাদের বিষয়টি জানা আছে এ নিয়ে আমাদের রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়েছে এটা প্রকাশ্যে বলার মতো বিষয় নয়।”

তিনি আরও জানান, এবারের নির্বাচনে গতবারের তুলনায় বুথের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে এবং সমস্ত ভোটগ্রহণ একতলাতেই হবে। কোভিড বিধি মেনেই নির্বাচনের যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। উল্লেখ্য মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গের ৮ টি জেলার জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপারদের সঙ্গে শিলিগুড়ির সুকনায় একটি চা বাগান ঘেরা বেসরকারী হোটেলে নির্বাচন আচরণবিধি সহ আইন শৃংখলার যাবতীয় বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ। এই আলোচনায় আরও ১১টি জেলার প্রতিনিধিরা ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন। এই বেসরকারী হোটেলেই সাংবাদিক সম্মেলন করেন মূখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা।

আরও পড়ুন