‘‘ভোট-পরবর্তী হিংসা থামছে না’’ নন্দীগ্রামে গিয়ে মমতার ওপর সোচ্চার রাজ্যপাল

নন্দীগ্রাম,১৫ মেঃ নন্দীগ্রামে পৌঁছলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় । পরিদর্শন করলেন একাধিক এলাকা। তাঁকে স্বাগত জানালেন শুভেন্দু অধিকারী ।

মমতাকে নিশানা করে কী বললেন রাজ্যপাল২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে খবরের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল নন্দীগ্রাম। নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরাজয়ের পর একাধিক হিংসার খবর এসেছিল নন্দীগ্রাম থেকে। ভোট পরবর্তী সংঘর্ষে গোটা রাজ্য জুড়েই প্রাণ হারিয়েছেন শাসক ও বিরোধী শিবিরের একাধিক কর্মী। বাদ যায়নি পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রামও। ঘরছাড়া দুই-দলেরই বহু কর্মী সমর্থক। সেই নন্দীগ্রাম পরিদর্শনেই এবার নন্দীগ্রামে পা রাখলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়

২০০৭ সালের পর নন্দীগ্রাম পরিদর্শনে বাংলার রাজ্যপাল। গত প্রায় এক সপ্তাহ আগে নন্দীগ্রাম পরিদর্শন করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রতিনিধিদল। এবার শনিবার নন্দীগ্রামের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। নন্দীগ্রামে পা রেখেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেন তিনি। জগদীপ ধনখড় বলেন, ‘একদল মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। আরেকদল বেপরোয়া। পুলিশ প্রশাসনের কোনও ভয়ডর নেই। সময় হয়ে এসেছে মুখ্যমন্ত্রী কিছু ব্যবস্থা নিক।’ তাঁর আরও সংযোজন, ‘মানুষ কোভিড পরিস্থিতিতে অসহায়। হাত জোর করে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করছি। মানুষের দুঃখ বুঝুন।’

এদিন সকাল ৯টা ৪০মিনিট নাগাদ রাজ্যপাল নন্দীগ্রামের অস্থায়ী হরিপুর হেলিপ্যাড ময়দানে BSF-এর কপ্টার থেকে নামেন। তাঁকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। মিনিট পাঁচেক রাজ্যপালের সঙ্গে বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীর কথা হয়। এরপর কেন্দামারি, নন্দীগ্রাম বাজার সহ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন রাজ্যপাল।

বেলা ১১টা ৪০ মিনিট নাগাদ নন্দীগ্রামের জানকিনাথ মন্দিরে পুজো দেন রাজ্যপাল।