ads

সারদাকাণ্ডে মমতার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ মুকুলের | UBG NEWS



UBG NEWS, ওয়েব ডেস্ক : লোকসভা নির্বাচনের মুখে সারদাকাণ্ডে নিয়ে ফের তোলপাড় বঙ্গ রাজনীতি। রবিবার কোচবিহারের সভা থেকে সারদা-নারদ কেলেঙ্কারি নিয়ে মমতাকে নিশানা করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, সারদা মা গোটা দেশে পূজিত হন। কিন্তু বাংলায় সারদা বলতে সারদা কেলেঙ্কারির কথা সকলে জানেন। মোদীর সারদা খোঁচার পাল্টা জবাব হিসেবে মমতা বলেন, সারদাকাণ্ডের অন্যতম মূল অভিযুক্তকে নিয়েই ‘মিটিং’ করছেন প্রধানমন্ত্রী। নাম না নিলেও সারদাকাণ্ডের ‘অন্যতম অভিযুক্ত’ বলতে যে মুকুল রায়কেই বোঝাতে চেয়েছেন মমতা, তেমনটাই মনে করছেন রাজনীতির কারবারিরা। মমতার সেই তীক্ষ্ণ জবাবের প্রত্যুত্তর দিতে গিয়ে মমতার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন একদা তাঁরই সেনাপতি তথা বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায়।

রবিবার সাংবাদিক বৈঠক ডেকে মুকুল রায় বলেন, ‘‘কোচবিহারে অসাধারণ জনসমাগম দেখে মমতার মাথা খারাপ হয়ে গিয়েছে। হেরে যাবেন বুঝতে পেরে উল্টোপাল্টা কথা বলছেন।’’ এরপরই সারদাকাণ্ড নিয়ে মমতার অভিযোগের পাল্টা হিসেবে মুকুল বলেন, ‘‘ওঁর সৎসাহস নেই। তাই তিনি নাম উচ্চারণ করতে পারছেন না। নাম বললে তো আইনি লড়াই লড়া যায়। সারদার ঘটনায় সবথেকে বড় সুবিধাভোগীর নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার দৌলতেই আমি প্রথম সুদীপ্ত সেনকে দেখি। তার আগে দেখিওনি, চিনতামও না। এরপর মমতার সৌজন্যেই কলকাতার নিজাম প্যালেসে সুদীপ্ত সেনের সঙ্গে দেখা হয়েছিল।’’

এ প্রসঙ্গে মুকুলের হুঁশিয়ারি, ‘‘অত্যন্ত দায়িত্বের সঙ্গে বলছি, সারদার ঘটনায় যদি আমায় অভিযুক্ত করা হয়, প্রমাণ করুন। অভিযোগ প্রমাণিত হলে, আমি আমার রাজনৈতিক জীবন থেকে অবসর নেব। সন্ন্যাস নেব। কিন্তু যিনি এই অভিযোগ করেছেন, তা যদি প্রমাণ না করতে পারেন, তাহলে কি তিনি রাজনৈতিক জীবন থেকে অবসর নেবেন?’’

Post a Comment

0 Comments