ads

মমতাই হচ্ছে উন্নয়নের 'স্পিডব্রেকার' শিলিগুড়িতে তোপ দাগলেন মোদী | UBG NEWS



UBG NEWS, ওয়েব ডেস্ক : উত্তরবঙ্গে শিলিগুড়ি দিয়ে বাংলায় ভোট প্রচার শুরু করলেন নরেন্দ্র মোদী। দুপুর দেড়টা নাগাদ শিলিগুড়ি জনসভায় এসে পৌঁছেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সভার একদম প্রথম দিকেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে উন্নয়নের ‘স্পীডব্রেকার’ বলে কটাক্ষ করেন বিজেপি নেতা। রাজ্যের সব রকম উন্নতির পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে আছেন তৃণমূল নেত্রী, এমনটাই বলেন মোদী। স্পষ্ট জানিয়ে দেন, সাধারণ মানুষকে নিয়ে প্রতিনিয়ত রাজনীতি করছেন তৃণমূল। বাম কংগ্রেসও অবশ্য একই পথে হাঁটছে বলেই জানান মোদী।

এক নজরে দেখে নিন, শিলিগুড়িতে কি বললেন মোদী।
জনসভায় প্রথমেই বাংলায় মন্তব্য শুরু করে, সাধারন মানুষকে ‘কেমন আছেন?’ জিজ্ঞেসা করেন। বাংলায় কথা বলার পরই তাঁর ছোটবেলায় শোনা বাংলাকে নিয়ে এক প্রবাদের কথা উল্লখ করে বলেন,’বাংলা যা করে, সারা দেশ তা পরে করে’। তারপরই সরাসরি তীর ছোঁড়েন মুখ্যমন্ত্রীর দিকে। তিনি বলেনঃ

১। দিদির নৌকা ডুবে গেছে পশ্চিমবাংলায়। শিলিগুড়ির এই জনসভা তারই প্রমাণ।
২। যেই গতিতে আমি সারা দেশে কাজ করেছি, সেই গতিতে আমি বাংলায় কাজ করতে পারিনি কারন বাংলায় একজন ‘স্পীড ব্রেকার’ আছে। তার নাম, মমতা বন্দোপাধ্যায়।
৩। পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী গরিব মানুষদের নিয়ে রাজনীতি করে। তাই, তিনি চাননা বাংলায় উন্নয়ন আসুক।
৪। NDA সরকার মধ্যবিত্তদের জন্য।
৫। গরিবদের টাকা নিয়ে চিটফান্ডের কেলেঙ্কারি করেছেন ‘দিদি’।
৬। গরিবদের চিকিৎসার জন্য ৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা থাকলেও তা আটকে দিয়েছেন দিদি।
৭। কৃষকদের টাকাতেও ‘ব্রেক’ লাগিয়েছে মমতা দিদি।
৮। আয়ুষ্মান প্রকল্পও চালাতে দেননি দিদি, কারন তিনি চান না, কোন রকম উন্নতি হোক এই রাজ্যের।
৯। চা বাগানের দুরবস্থার কথা আমি জানি। তাদের জন্য অনেক কিছু করেছে বিজেপি। ভবিষ্যতে এই চা ওয়ালা চা বাগানের শ্রমিকদের জন্য আরও করবে।
১০। দেশের সেনা বালাকটের হামলার পর, দেশের সুরক্ষা করার জন্য বিরোধী দলের তরফ থেকে অনেক প্রশ্নের মুখে পড়েছিল দেশের সেনা। সেই বিরোধী দলের সঙ্গে আমাদের লড়াই।
১১। আমরা জঙ্গিদের ঘরে ঢুকে মেরেছি। দেশের শত্রুদের এই ভাবেই শেষ করব আমরা।
১২। পাকিস্তানের জঙ্গি হামলার পর, আমরা তাদের জবাব দিয়েছিলাম। সেই জবাবে পাকিস্তানীদের থেকেও বেশি কষ্ট পেয়েছিলেন বাংলার ‘দিদি’।
১৩। এই লড়াই এক সৎ চৌকীদারের সঙ্গে দাগিদের।
১৪। আমার লড়াই দেশের চোরদের বিরুদ্ধে।
১৫। বিজেপিকে এই ভাবে সমর্থন করলে, দেশে আরও উন্নতি হবে।
১৬। সারা দেশে আমরা চৌকিদারের ভুমিকা পালন করলে, কোন শত্রুই আমদের কোন ক্ষতি করতে পারবে না।
১৭। বিজেপির প্রতি বাংলার মানুষের সমর্থন অভূতপূর্ব।
১৮। জনসভা শেষ করার আগে, ‘মে ভি চৌকিদার’ স্লোগান বারবার বলে সভা শেষ করলেন প্রধানমন্ত্রী।

শিলিগুড়ির জনসভায় পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের দিকে সরাসরি আঙ্গুল তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এর জবাবে কি বলবেন দিদি, তা জানার জন্য অপেক্ষায় রয়েছে গোটা রাজ্য। কোচবিহারের দিনহাটায় তৃণমূল নেত্রীর আজকের জনসভায় তারই উত্তর দেবেন বলে জানিয়েছেন খোদ ‘দিদি’।

Post a Comment

0 Comments