ads

স্পর্শকাতর এলাকায় ভোটারের মনোবল বাড়াতে পুলিশকে বিশেষ নির্দেশ মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের I UBG NEWS


ওয়েব ডেস্কঃ ৯ মার্চ : কেন্দ্রীয় বাহিনী আসবে পরে। তার আগেই অতীতের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে রাজ্য পুলিশকে বিশেষ নির্দেশ দিল মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের (CEO) দপ্তর। সূত্র জানাচ্ছে, অতীতের নির্বাচনে যে এলাকাগুলিতে অশান্তির ঘটনা ঘটেছে সেখানে ভোটাদের মনোবল বাড়াতে পুলিশকে সক্রিয় হতে বলেছে CEO অফিস। তাছাড়াও গোটা রাজ্যে পুলিশের সক্রিয়তা বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, যে ব্যক্তিরা অতীতে নির্বাচনে গোলমাল পাকিয়েছিল তাদের চিহ্নিত করে সতর্ক করতে বলা হয়েছে পুলিশকে। এ বিষয়ে সতর্ক দৃষ্টি রাখছে নির্বাচন কমিশন। এই বিষয়ে সাত দিন অন্তর রিপোর্ট পাঠাতে বলা হয়েছে কমিশনের তরফে। পাশাপাশি গত এক বছরের মধ্যে যে সমস্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রয়েছে তাদের দ্রুত গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সূত্র জানাচ্ছে, সেই সংখ্যাটা এই মুহূর্তে ৬০ হাজারের কাছাকাছি। ওই সব ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের ক্ষেত্রে যে সব জেলা অবহেলা করছে তাদের ওপর ক্ষুব্ধ কমিশন। রাঢ়বঙ্গের একটি জেলার পুলিশ সুপার এই বিষয়ে ধমক খেয়েছেন CEO অফিসের থেকে।

CEO অফিস সূত্রে খবর, এখনই পুলিশকে রাস্তায় রুটমার্চ করার কোনও নির্দেশ দেওয়া হয়নি। তবে বেআইনি মদের ভাটি ভাঙা, দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অভিযান চালানো ইত্যাদির মাধ্যমে ভোটারের মনোবল বৃদ্ধির কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি বেআইনি অস্ত্র উদ্ধারে বিশেষ নজর দিতে বলা হয়েছে। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই পুলিশ রাজ্যজুড়ে শুরু করে দিয়েছে সেই কাজ। এ বিষয়ে নির্দিষ্ট নির্দেশ পাওয়ার পর গত দুই মার্চ বিশেষ অভিযানে নামে কলকাতা পুলিশ। ওই দিন রাত ৯টা থেকে পরের দিন দুপুর ১টার মধ্যে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা থাকা ২৫৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়াও গ্রেপ্তার করা হয়েছে আরও ৫৯৪ জনকে। একটি অস্ত্র এবং এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হয়েছে ৫৩৫.৫ লিটার মদ।

Post a Comment