ads

ভোটের আগে আক্রান্ত বিজেপি নেতা, চাঞ্চল্য ইসলামপুরে I UBG NEWS


ইসলামপুর: নির্বাচনের দিন ঘোষণার পরে থেকে দলবদলের খেলা যেমন চলছে, পাশাপাশি রাজ্যে রাজনৈতিক হিংসার ঘটনা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ভোটের আগে ফের আক্রান্ত হল বিজেপি নেতা। একটি অনুষ্ঠান বাড়ি থেকে ফেরার পথে দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হলেন ইসলামপুরের বিজেপি নেতা অপূর্ব চক্রবর্তী। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় মানুষজন অপূর্ব বাবুকে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করে। তবে পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় রাতেই তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয় শিলিগুড়িতে। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে ইসলামপুরে। বিজেপির পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার রাতে ইসলামপুর থানার গুঞ্জরিয়া এলাকায় এক আত্মীয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলেন ইসলামপুর শহরের বাসিন্দা বিজেপি নেতা অপূর্ব চক্রবর্তী। অভিযোগ, রাত দশটা নাগাদ অনুষ্ঠান বাড়ি থেকে ফেরার পথে তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরা আচমকা আক্রমন করে অপূর্ববাবুকে। দশ বারো জনের একটি দল অপূর্ব চক্রবর্তীকে এলোপাথাড়ি মারধর শুরু করে। স্থানীয় বাসিন্দারা ছুটে আসলে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। স্থানীয় বাসিন্দারা গুরুতর জখম অপূর্ব চক্রবর্তীকে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে তাঁকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শিলিগুড়ি নিয়ে যাওয়া হয়।
বিজেপির উত্তর দিনাজপুর জেলা সহ সভাপতি সুরজিৎ সেন বলেন, দলের ইসলামপুর শহর বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি ইসলামপুর মহকুমা আদালতের ক্লার্ক অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য অপূর্ব চক্রবর্তীর উপর হামলা করেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ইসলামপুরের গুঞ্জরিয়ায় আমাদের দলের সক্রিয় কর্মী অপূর্ব চক্রবর্তীর উপর তৃণমূলী হামলার তীব্র নিন্দা করছি। পাশাপাশি দুষ্কৃতীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবী করছেন বিজেপি নেতা সুরজিৎ সেন।
এই বিষয়ে ইসলামপুর তৃণমূল কংগ্রেস নেতা জাকির হোসেন বলেন অপূর্ববাবুর উপর হামলার ঘটনায় তাঁদের দল কোনওভাবেই জড়িত নয় । এখানে বিজেপি দিশেহারা হয়ে এইসব অপপ্রচার করছে। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ইসলামপুরের গুঞ্জরিয়া এলাকায়। ঘটনার তদন্ত শুরু  হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত,  এবারের লোকসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণা হবার পরেই নির্বাচন কমিশনে গিয়ে বাংলার প্রতিটি বুথকে অতি স্পর্শকাতর ঘোষণার দাবি জানাল বিজেপি। বুধবার কমিশনের দফতরে গিয়ে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরার সঙ্গে কথা বলেন বিজেপি নেতেরা। বিজেপির-র তরফে প্রতিটি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের দাবিও জানানো হয়েছে।

Post a Comment