ads

রাজ্যে ভোট সাত দফায়, গণনা ২৩ মে I UBG NEWS


ওয়েবডেস্ক:‌ বেজে গেল ভোটের দামামা। লোকসভা ভোটের দিন ঘোষণা করলেন মুখ্যনির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা। গোটা দেশে মোট সাত দফায় লোকসভা ভোটের কথা ঘোষণা করলেন তিনি। ১১ এপ্রিল থেকে শুরু হবে লোকসভা ভোট। প্রথম দফা ১১ এপ্রিল, দ্বিতীয় দফা ১৮ এপ্রিল, তৃতীয় দফা ২৩ এপ্রিল, চতুর্থ দফা ২৯ এপ্রিল, পঞ্চম দফা ৬ মে, ষষ্ঠ দফা ১২ মে, সপ্তম দফা ১৯ মে। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে ভোট হবে সাত দফায়।
১১ এপ্রিল ১ম দফায় রাজ্যে ভোট দুটি আসনে। ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় পশ্চিমবঙ্গে ভোট হবে  তিনটি আসনে।  ২৩ এপ্রিল তৃতীয় দফায় পশ্চিমবঙ্গের পাঁচটি আসনে ভোট হবে। ২৯ এপ্রিল চতুর্থ দফায় রাজ্যে  আটটি আসনে ভোট।  ৬ মে পঞ্চম দফায় পশ্চিমবঙ্গের সাতটি আসনে ভোট।  ১২ মে ষষ্ঠ দফায় আটটি আসনে।১৯ মে সপ্তম দফায় ন’‌টি আসনে ভোট হবে।
গোটা দেশের সাত দফায় ভোটের মধ্যে প্রথম দফায় ভোট হবে ২০ টি রাজ্যে(‌ ৯১টি কেন্দ্র)‌, দ্বিতীয় দফায় ভোট ১৩ টি রাজ্যে (‌৯৭টি কেন্দ্র)‌, তৃতীয় দফা ১৪ টি রাজ্যে(‌১১৫টি কেন্দ্র)‌, চতুর্থ দফা ৯টি রাজ্যে(‌৭১টি কেন্দ্র)‌, পঞ্চম দফা ৭টি রাজ্যে (‌৫১টি কেন্দ্র)‌,ষষ্ঠ দফা ৭টি রাজ্য (‌৫৯টি কেন্দ্র)‌, সপ্তম দফায় ৮টি রাজ্যে(‌৫৯টি কেন্দ্র)‌।
একদফায় ভোট হবে অরুণাচল, অন্ধ্রপ্রদেশ, গোয়া, গুজরাট, হরিয়ানা, হিমাচল প্রদেশ, কেরল, মেঘালয়, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড, পাঞ্জাব, সিকিম, তেলঙ্গানা, তামিলনাড়ু, উত্তরাখণ্ড, আন্দামান নিকোবর, দাদরা নগর হাভেলি, দমন দিউ। দুই দফায় ভোট হবে কর্নাটক, মণিপুর, রাজস্থান এবং ত্রিপুরায়। তিন দফায় ভোট হবে অসম ও ছত্তিশগড়ে। চার দফায় ফোট হবে ঝাড়খণ্ড, মহারাষ্ট্র, ওড়িশা, মধ্যপ্রদেশে। পাঁচ দফায় ভোট হবে জম্মু ও কাশ্মীরে।
ভোটের দিন ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে গোটা দেশে আজ থেকেই জারি হয়ে গেল আদর্শ নির্বাচনী আচরণবিধি। কমিশন জানিয়েছে, মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়া শুরু হবে ১৮ মার্চ থেকে । মনোনয়ন জমার শেষ দিন ২৬ মার্চ। এছাড়া নির্বাচনের সময়েও ভোটেরদের আদর্শ পরিবেশ বজায় রাখে একাধিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে কমিশন। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারের খরচও এবার নির্বাচনী খরচ হিসেবে বিবেচনা করা হবে। তার হিসেবও প্রার্থীদের কমিশনকে দিতে হবে। সুষ্ঠু ও অবাধ ভোট করতে বদ্ধ পরিকর নির্বাচন কমিশন সব রকম ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানিয়েছেন সুনীল অরোরা। মোট ৯০ কোটি ভোটার এবার ভোট দেবেন। তার মধ্যে দেড়কোটি নতুন ভোটার। সব পোলিং স্টেশনেই থাকবে ভি ভি প্যাড। ভোটাররা যাতে সরাসরি অভিযোগ জানাতে পারেন তার জন্য ১৯৫০ নম্বর চালু করা হয়েছে। কোথাও কোনও অসঙ্গতি নজরে পড়লে তা সরাসরি ভিডিও করেও অভিযোগ জানাতে পারবেন ভোটাররা, চাইলে গোপণ রাখতে পারবেন পরিচয়। অভিযোগ জানানোর ১০০ মিনিটের মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। ভোটারদের যাতে ভোট দিতে কোনও অসুবিধা না হয় সেকারণে ইভিএমে প্রার্থীদের ছবি থাকবে। ইভিএম যাতে স্থানান্তরিত না করা যায়, সেকারণে জিপিএস ট্র্যাকার লাগানো থাকবে প্রতিটি মেশিনে। ভোটারদের আস্থা বজায় রাখতে আগের দিন কেন্দ্রীয় বাহিনী রুটমার্চ করবে বলে জানিয়েছেন মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক।
জনসাধারণের স্বার্থে রাত দশটা থেকে সকাল ছ’‌টা পর্যন্ত লাউডস্পিকার বাজানোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে। ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে সংশ্লীষ্ট এলাকায় লাউডস্পিকার বাজানো যাবে না বলে জানিয়েছে কমিশন।

Post a Comment