ads

ঘাটালে প্রচারে বেরিয়ে প্রশ্নবাণে বিদ্ধ ভারতী I UBG NEWS


ঘাটাল: প্রচারে বেরিয়েও প্রশ্ন পিছু ছাড়ছে না ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষকে। পিংলা বিস্ফোরণ–কাণ্ড থেকে সবং কলেজে ছাত্র খুন, তার পর দাসপুর সোনা প্রতারণা মামলা —সব প্রশ্নই ঘুরে ফিরে উঠছে ভারতীকে নিয়ে। কখনও দলের কর্মী–সমর্থকরা, আবার কখনও যে এলাকায় প্রচারে যাচ্ছেন, সেখানকার মানুষ ভারতী ঘোষের দিকে ছুঁড়ে দিচ্ছেন এ রকমই সব নানা প্রশ্ন। প্রশ্নবাণে বিদ্ধ ভারতী কখনও প্রশ্নের কায়দা করে জবাব দিচ্ছেন তো আবার কখনও এড়িয়ে যাচ্ছেন।
পুলিশ সুপার থাকাকালীন যঁাকে ঘিরে এ–সব প্রশ্ন তোলার সাহস পেতেন না কেউ, প্রার্থী হতেই সাধারণ মানুষ হেলায় সেইসব অপ্রিয় প্রশ্নই আজ ছুঁড়ে দিচ্ছেন তঁার দিকে। একদিন যঁাকে রীতিমতো ভয় করতেন সকলে, আজ কোনও ভয়–ডরের তোয়াক্কা না করে তঁারাই অত্যন্ত বিনীতভাবে সেই প্রশ্নগুলি তুলে ধরছেন বিজেপি প্রার্থীর কাছে। ২০১৪ সালে ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী ছিলেন দেব। সেই সময় তঁার নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন ভারতী ঘোষ। আজ ব্যাপারটা বদলে গিয়েছে। সেই দেব এবারও প্রার্থী। কিন্তু গতবার তঁার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সেই ভারতীই এবার দেবের বিরুদ্ধে প্রার্থী হয়েছেন। তঁাকে ঘিরে প্রশ্ন ওঠায় ভারতী ঘোষ বলেন, ‘‌একজন পুলিশ সুপারকে অনেক কিছু মেনে কাজ করতে হয়। শুধু পিংলা কেন, বীরভূম, ভাঙড়ে কত বিস্ফোরণ ঘটেছে। চাকরি ছাড়ার পর আমার বিরুদ্ধে সব মিথ্যে মামলা করা হয়েছে। মানুষ ভোটের দিনই এর জবাব দেবেন।’‌
ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হওয়ার দাবিদার ছিলেন বিজেপি নেত্রী অন্তরা ভট্টাচার্য। তিনি সিপিএম ছেড়ে ২০১৪ সালে বিজেপি–তে যোগ দেন। দু’‌বার সিপিএম পরিচালিত জেলা পরিষদের সভাধিপতি ছিলেন। পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতিও ছিলেন। ২০১৬ সালে সবং বিধানসভার উপনির্বাচনে বিজেপি–র প্রার্থী হন। হেরে যান তৃণমূলের গীতারানি ভুঁইয়ার কাছে। লড়াইয়ের মানসিকতা থাকায় দল তঁাকে ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী করবে বলে প্রথমে ঠিক করেছিল। কিন্তু দিল্লিতে বিজেপি–তে যোগ দিয়ে প্রার্থী হয়ে যান ভারতী ঘোষ।

Post a Comment

0 Comments