ads

পাকিস্তানকে জবাব দিতে কেন মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমানটিই ব্যবহার করল ভারত, জানুন বিস্তারিত | UBG NEWS

UBG NEWS, ওয়েব ডেস্ক : পুলওয়ামার প্রত্যাঘাত পাকিস্তানকে। ভারতের হাতিয়ার মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমান। নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে পাকসন্ত্রাসবাদী ঘাঁটিতে গিয়ে মঙ্গলবার ভোরে অভিযান চালাল ভারত। ভারতীয় বায়ুসেনার যুদ্ধবিমান ‘মিরাজ ২০০০’-এর ১২টি যুদ্ধ বিমান অভিযান চালায় জঙ্গিঘাঁটিতে।

ঠিক কী কারণে মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমানটিই ব্যবহার করল ভারত?

সাতের দশক থেকে ভারতের হাতে রয়েছে ফ্রান্সের দাসাল্তের তৈরি এই যুদ্ধবিমান। তবে তিন দশক আগে তৈরি হলেও এই বিমানের একাধিক আপগ্রেডেশন হয়েছে এই দীর্ঘ সময়ে। এর বিশেষত্ব, শত্রু দেশের রেডারকে ফাঁকি দিয়ে তাদের বায়ুসীমায় প্রবেশ করে বোমাবর্ষণে করতে সিদ্ধহস্ত এই বোমারু বিমান।

মিরাজ-২০০০-এর চালকের মাথায় থাকা হেলমেটের মধ্যেই যুক্ত রয়েছে ডিসপ্লে। যুদ্ধবিমানে যেখানে ককপিটে রেডার থাকে, সেটা এই বিমানে রয়েছে চালকের কাছেই। ফলে আসনে থেকেই তিনি সুপারইমপোজড রেডার ডেটা দেখতে পান সরাসরি।

তার উপর এটিতে রয়েছে প্রচণ্ড শক্তিশালী রেডার। যার সাহায্যে লক্ষ্যবস্তুকে নিশানা করতে পারে সহজেই, ডপলার বিমিং প্রযুক্তির মাধ্যমে মাটিতে থাকা যে কোনও বস্তুর নিখুঁত মানচিত্র এঁকে ফেলতে সক্ষম। এতে রয়েছে ‘অটো ক্যানন’ বা কামান, যা শত্রু পক্ষের বিমানকে মাঝ আকাশে ধবংস করতে পারে অনায়াসে। পাশাপাশি রকেট থেকে শুরু করে লেজার গাইডেড বম্ব বহন করতে পারে বিমানটি।

জানা যায়, এক বার আকাশে উড়তে প্রায় ৫ হাজার ৯০০ কেজি ওজনের অস্ত্রশস্ত্র ও বোমা সঙ্গে নিতে পারে। কার্গিল যুদ্ধের সময়ও টলোলিং ও বাটালিক সেক্টরে পাকিস্তানের আতঙ্কের কারণ হয়ে উঠেছিল এই মিরাজ-২০০০।

উল্লেখ্য, সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে ভারতের হাতে রয়েছে প্রায় ৪০টি মিরাজ যুদ্ধবিমান।

Post a Comment

0 Comments