ads

রাজ্যে কালবৈশাখীর দাপটে মৃত মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী-সহ ৩। UBG NEWS

UBG NEWS, নিউজ ডেস্ক : রাজ্যে প্রাকৃতিক দুর্যোগের বলি তিন জন। পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুরে ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরে বাজ পড়ে এক প্রৌঢ় ও এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। কেশপুরে গুরুতর জখম মৃতের স্ত্রীও।

দক্ষিণবঙ্গের অন্যন্য জেলার মতোই সোমবার ভোর থেকে ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয় পশ্চিম মেদিনীপুরেও। দুর্যোগ চলে সকাল পর্যন্ত। কেশপুরের আমুড়িয়া গ্রামের বছর পঞ্চান্নর প্রৌঢ় হাবিবুর রহমান রোজকার মতোই সোমবার সকালে মাঠে কাজ করতে গিয়েছিলেন। তখনই আচমকা চাষের জমিতে বাজ পড়ে। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তড়িঘড়ি মাঠে পৌঁছান হবিবুরের স্ত্রীও। স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে ব্রজপাতের কবলে পড়েন তিনি। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি হবিবুরের স্ত্রী। প্রৌঢ়ার মৃত্যুর ঘটনায় শোক পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুরের আমুড়িয়া গ্রামে।

অন্যদিকে, দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরে বাজ পড়ে প্রাণ গেল এক কিশোরীর। বারুইপুরের দক্ষিণ কুড়ালি গ্রামে বাড়ি মল্লিকা নস্করের। এ বছর মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে সে। টিনে চালার বাড়িতে থাকত মল্লিকা। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, সোমবার ভোরে যখন বাড়িতে কাজ করছিল ওই কিশোরী, তখন টিনে চালায় বাজ পড়ে। গুরুতর জখম অবস্থায় মল্লিকাকে নিয়ে যাওয়া হয় বারুইপুর স্বাস্থ্য জেলা হাসপাতালে। কিন্তু শারীরিক অবস্থায় অবনতি হওয়ায় তাঁকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় কলকাতায়। কিন্তু মল্লিকাকে আর কলকাতা পর্যন্ত আনা যায়নি। পথেই মারা যায় সে। এদিকে পুরুলিয়াতেও প্রবল ঝড়-বৃষ্টিতে অনুষ্ঠানের প্যান্ডেল ভেঙে একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকেই মৃত্যুর খবর আসতে থাকায়, আরও সজাগ প্রশাসন। আবহাওয়া সম্পর্কে ঘন ঘন খবর পাঠিয়ে সতর্ক করা হচ্ছে জেলা প্রশাসনকে এবং রাজ্যবাসীকে। আগামী দু দিন সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকার বাসিন্দাদের জন্য বিশেষ সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে।

Post a Comment

0 Comments