ads

পণ দিতে না পারায় স্ত্রী কে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে | UBG NEWS

UBG NEWS, কোচবিহার : পণের দাবি মেটাতে না পারায় গৃহবধূর শরীরে কেরোসিন তেল ঢেলে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের ময়নাগুড়ি এলাকায়। মৃত ওই গৃহবধূর নাম প্রভাদিনি রায়(২২)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বছর দু'য়েক আগে ময়নাগুড়ির বাপি রায়ের সঙ্গে মেখলিগঞ্জের প্রভার প্রেম করে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই পণের জন্য প্রভার ওপর অত্যাচার শুরু করে শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। পাশাপাশি পণের জন্য চাপ দিতে থাকে স্বামী বাপিও। কিন্তু তা না দেওয়ায় প্রভার ওপর শুরু হয় অত্যাচার। এরপর ২১ ফেব্রুয়ারি পণের জন্য মারধর করে প্রভার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় শ্বশুরবাড়ির সদস্যরা। পরে তাঁকে গুরুতর জখম অবস্থায় উদ্ধার করে প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। কিন্তু সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পরদিন অর্থাৎ ২২ ফেব্রুয়ারি, হাসপাতালেই মৃত্যু হয় তার।

পুলিশ সূত্রে খবর, গতকাল মেখলিগঞ্জ থানায় যুবতির স্বামী সহ ছ'জনের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের হয়। যদিও ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্তরা। তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। 

মৃতের মা সাকালী রায় বলেন, "জামাই ৫০ হাজার টাকা পণ চেয়েছিল। কিন্তু, আর্থিক সঙ্গতি না থাকায় দিতে পারিনি। পণের জন্য মেয়েকে ওরা মেরে ফেলবে, তা স্বপ্নেও ভাবতে পারিনি।" 

Post a Comment

0 Comments