ads

মিলছে না ২ টাকা কেজি ভর্তুকির চাল, প্রকাশ্য সভায় প্রশ্ন করে অস্বস্তিতে উন্নয়নমন্ত্রী I UBG NEWS

আলিপুরদুয়ার, ২৩ ফেব্রুয়ারি : "যাঁরা ২ টাকা কেজি দরে ৩৫ কিলো চাল পান তাঁরা হাত তুলুন।" কারো হাত উঠল না। এবার প্রশ্ন, কেউ পান না? সমস্বরে উত্তরে এল "না"। স্বভাবতই অস্বস্তিতে প্রশ্নকর্তা। ঘটনাটি আলিপুরদুয়ার ২ নম্বর ব্লকের শামুকতলার। প্রশ্নকর্তা উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। সরকার ভর্তুকি দিচ্ছে চালে। কিন্ত তা পৌঁছাচ্ছে না জনগনের কাছে। আদিবাসীদের অধিকাংশের অভিযোগ ২ টাকা কেজিদরের সেই চাল তারা পান না। আলিপুরদুয়ারের প্রকাশ্য সভায় এই অভিযোগ ওঠায় অস্বস্তিতে পড়লেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী। বিষয়টি নিয়ে তিনি জেলাশাসকের রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন।
যে সব সামাজিক প্রকল্পগুলি রাজ্যে সফল বলে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন, সেগুলির মধ্যে রয়েছে অন্ত্যোদয় প্রকল্প। যদিও এই প্রকল্পের সাহায্য অনেকের কাছেই পৌঁছয় না বলে অভিযোগ ছিল বিরোধীদের। এবার আলিপুরদুয়ারের শামুকতলায় সভা থেকে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ জিজ্ঞাসা করেন, কারা কারা ২ কেজি দরে চাল পান না। বেশিভাগই সাড়া দেন। ফলে বেজায় অস্বস্তিতে পড়ে যান তিনি। নিজের মুখে বলেন অস্বাভাবিক ব্যাপার। যার ফলে মঞ্চ থেকেই এলাকার জনপ্রতিনিধিদের বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন তিনি। এমনকি ডিএমকে রিপোর্ট দেওয়ারও নির্দেশ দেন।
এরপর তাঁর পাশ থেকে প্রশ্ন করেন জেলা তৃণমূল সভাপতি মোহন শর্মা। তিনি জিজ্ঞাসা করেন, "আপনারা রেশন পান না?" উত্তর সেই একই। না। সেইসময় মঞ্চে উপস্থিত সাংসদ দশরথ তিরকে, বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী সহ প্রশাসনিক কর্তারা।
ঘটনার পর অস্বস্তিতে পড়েন সকলে। বিডিও  কে রবীন্দ্রনাথ ঘোষ প্রশ্ন করেন, "কেন পাচ্ছে না চাল?" ২ দিনের মধ্যে বিষয়টি দেখার নির্দেশ দেন তিনি। তখনও দর্শক আসন থেকে আওয়াজ আসছে, আমরা ২ টাকা কিলো দরে চাল পাই না। 
আলিপুরদুয়ারের শামুকতলায় জয়ন্তী নদীর ওপর সেতুর শিলান্যাসের মঞ্চ থেকে মন্ত্রী বলেন, সরকার কেজি প্রতি ২৩ টাকা ভর্তুকি দিচ্ছে, যাতে সাধারণ মানুষ খেয়ে পড়ে বাঁচতে পারে। কিন্তু সাধারণের হাতে সেই চাল না পৌঁছনোয় সরকারের উদ্দেশ্য সফল হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী। তবে স্থানীয়দের মতে, প্রকল্প কেবল খাতা কলমে, বাস্তবায়নে অনেক ঘাটতি আছে।

Post a Comment

0 Comments