ads

বন্ধ হোক কাশ্মীরিদের ওপর হামলা, কাশ্মীরিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কেন্দ্র ও দশ রাজ্যকে নোটিস সুপ্রিম কোর্টের I UBG NEWS


ওয়েব ডেস্ক : পুলওয়ামা হামলার পর দেশের নানা জায়গায় হুমকি, হুঁশিয়ারি এমনকী, আক্রমণের মুখেও পড়েছিল কাশ্মীরিরা ৷ বহু জায়গা থেকে এসেছিল নানা হেনস্থার খবরও ৷ পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার ঘটনার জেরে দেশের একাধিক রাজ্যে কাশ্মীরি পড়ুয়া ও সাধারণ নাগরিকদের উপর বেড়ে চলেছে অত্যাচার৷ যাতে বিব্রত সুপ্রিম কোর্ট৷ কেন্দ্র ও দেশের দশ রাজ্যকে সমস্ত কাশ্মীরিদের নিরাপত্তা প্রদান করার নোটিস দিল শীর্ষ আদালত৷ শুক্রবার শীর্ষ আদালতের তরফে বলা হয়েছে, কাশ্মীরিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কী ব্যবস্থা নিচ্ছে বা নেওয়া হয়েছে কেন্দ্র এবং ওই দশ রাজ্যের তরফে, তাও জানাতে হবে৷ সেই হেনস্থা থেকেই কাশ্মীরিদের স্বস্তি দিতে এবার কড়া পদক্ষেপ নিল সুপ্রিম কোর্ট ৷ এই ধরণের হেনস্থার ঘটনা এখনই বন্ধ হোক জানিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ও দেশের ১০ রাজ্যকে কড়া নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট ৷ সঙ্গে সু্প্রিম কোর্ট আরও জানাল, হেনস্থার খবর পেলেই কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে ৷ সুপ্রিম কোর্টের এই নির্দেশকে কুর্ণিশ জানিয়েছেন জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা ৷
নয়াদিল্লি-সহ জম্মু-কাশ্মীর, উত্তরাখণ্ড, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, মেঘালয়, ছত্তিশগড়, পশ্চিমবঙ্গ, পাঞ্জাব ও মহারাষ্ট্র সরকারকে এই নোটিস পাঠিয়েছে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের ডিভিশন বেঞ্চ৷ দেশের বিভিন্ন প্রাপ্তে কাশ্মীরি নাগরিকদের উপর অত্যাচারের ঘটনা বেড়ে যাওয়ায়, মঙ্গলবার শীর্ষ আদালতে একটি পিটিশন ফাইল করেছিলেন আইনজীবী তারিক আদিব৷ সেই পিটিশনের পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার এই নোটিস জারি করল শীর্ষ আদালত৷ উক্ত পিটিশনে কাশ্মীরিদের নিয়ে মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়ের বিতর্কিত টুইটের প্রসঙ্গও উল্লেখ করেছিলেন আইনজীবী তারিক আদিব৷ এবং বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ৷ সূত্রের খবর, এরপর তিনি জানান, গণপিটুনির ঘটনা প্রতিরোধের জন্য যে সমস্ত নোডাল অফিসাররা এতদিন কাজ করতেন৷ এবার থেকে কাশ্মীরিদের উপর অত্যাচারের বিষয়টিও তাঁরাই দেখবেন৷ পাশাপাশি, স্বরাষ্ট্র দপ্তরকে বলা হয়েছে, এই বিষয়ে সচেতনতামূলক প্রচার বাড়াতে৷ যাতে সাহায্যপ্রার্থীরা সহজে প্রশাসনের নাগাল পায়৷ এছাড়া প্রতিটি রাজ্যের মুখ্য সচিব, পুলিশের ডিজি ও দিল্লির পুলিশ কমিশনারকে বলা হয়েছে, কাশ্মীরিদের উপর অত্যাচারের কোনও ঘটনা ঘটলে বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখার৷ এবং যথাযথ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করার৷
উল্লেখ্য, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় সেনা কনভয়ে আত্মঘাতী হামলা চালায় একজন জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি৷ বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি নিয়ে সেনার একটি গাড়িতে ধাক্কা মারে আত্মঘাতী জঙ্গি আদিল আহমেদ দার৷ তদন্তে উঠে আসে, জম্মু-কাশ্মীরেরই বাসিন্দা এই যুবক৷ গত বছর জইশে নাম লিখিয়েছিল সে৷ এরপর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কাশ্মীরিদের উপর অত্যাচার শুরু হয়৷ এ রাজ্যের একাধিক জেলায় কাশ্মীরি শাল বিক্রেতাদের উপর হামলার ঘটনাও ঘটেছে৷ নদিয়ায় এক শাল বিক্রেতাকে মারধর করা হয়৷ উত্তরাখণ্ড থেকে কাশ্মীর ফিরে যাওয়ার হুমকি দেওয়া হয় ছাত্রদের৷ অভিযোগের আঙুল ওঠে বজরং দলের দিকে৷ বৃহস্পতিবার, মহারাষ্ট্র শিব সেনার যুব সংগঠনের সদস্যের মারধরের মুখে পড়ে কয়েকজন কাশ্মীরি ছাত্র৷

Post a Comment

0 Comments