ads

৩টি আগ্নেয়াস্ত্র সহ ৭ জন দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করলো কোচবিহার কোতোয়ালি থানার পুলিশ I UBG NEWS

কোচবিহার, ২৭ ফেব্রুয়ারিঃ ৩টি আগ্নেয়াস্ত্র সহ ৭ জন দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করলো কোচবিহার কোতোয়ালি থানার পুলিশ। আজ সন্ধ্যায় গোপন সুত্রে খবর পেয়ে  আইসি সৌম্যজিৎ রায়ের নেতৃত্বে কোচবিহার কোতোয়ালি থানার পুলিশ ১ নং ব্লকের ঘুঘুমারী গ্রাম পঞ্চায়েতে শো মিল সংলগ্ন ৩নং মাশনেরপাট মন্দির এলাকায়  হানা দিয়ে ৭ জন দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করে। কোতোয়ালি থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,  তাদের কাছ থেকে ২টি সেভেন এমএম, ১ টি দেশীয় পিস্তল, ১ টি কুকরি , ১ টি লোহার রড ও ৭টি মোবাইল ফোন উদ্ধার হয়েছে। ধৃতদের নাম জিয়ারুল হক, হাফিজুল রহমান, ওয়াসিম আক্রম, দিলওয়ার  হোসেন, রেজায়ুল করিম মিয়াঁ, মিন্টু রহমান ও প্রত্যুষ গোস্বামী । এদের প্রত্যেকের বাড়ি কোচবিহার জেলার দিনহাটা মহকুমা এলাকায়।
পুলিশ সূত্রে আরোও জানা গিয়েছে, পুলিশের প্রাথমিক অনুমান ডাকাতির উদ্দেশ্যে জমায়েত হয়েছিল এই ৭ জন দুষ্কৃতী। ইতিমধ্যেই গ্রেফতার হওয়া দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু এবং অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করেছে কোতোয়ালি থানার পুলিশ। বেশ কিছু দিন ধরে কোচবিহার জেলা পুলিশের লাগাতার অভিযান চলছে বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের বিরুদ্ধে । ইতিমধ্যেই বেশ কিছু অস্ত্র উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। গ্রেফতার হয়েছে অনেকেই। আজ ফের কোতোয়ালি থানার আইসির সৌম্যজিৎ রায়ের নেতৃত্বে ৩ টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৭ জনকে গ্রেফতার করার ঘটনা পুলিশের অনেক বড় সাফল্য বলে মনে করা হচ্ছে।
কোচবিহার জেলা পুলিশ সুপার অভিষেক গুপ্তা জানান, ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় থেকেই কোচবিহার জেলার বিভিন্ন এলাকায় শাসকদলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে যথেচ্ছ বোমা ও আগ্নেয়াস্ত্রর ব্যবহার চলছে। কোচবিহারে এসে এনিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বোম-বন্দুক উদ্ধারের জন্য পুলিশকে কড়া নির্দেশ দেন। তারপর পুলিশের অভিযানে গতবছরের শেষ কয়েক মাসে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে পুলিশ বেশ কিছু আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এখনও পর্যন্ত ৫০টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে কোচবিহার জেলা পুলিশ। 

Post a Comment

0 Comments