ads

কাশ্মীরের আকাশ সহ একাধিক বিমানবন্দরে অসামরিক বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা, জারি সতর্কতা

নিউজ ডেস্ক : জম্মু-কাশ্মীম অসামরিক বিমান উঠা-নামায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল। সেই সঙ্গে এই পরিস্থিতিতে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। পুলওয়ামার জঙ্গিহানার বদলা নিতে পাকিস্তানের উপর প্রত্যাঘাত করেছে ভারতীয় বায়ুসেনা। তার পালটা হিসেবে পাকিস্তান মঙ্গলবার রাত থেকে নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করেছে।
জম্মু, শ্রীনগর, লেহ, চণ্ডীগড় ও অমৃতসর বিমানবন্দর থেকে অসামরিক বিমান ওঠা-নামা বন্ধ করল কেন্দ্রীয় সরকার। কারণ এই পাঁচটি বিমানবন্দর ভারত-পাকিস্তান সীমানার কাছে অবস্থিত। অনির্দিষ্টকালের জন্য এই পরিষেবা বন্ধ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এই পাঁচ বিমানবন্দরের দিকে আসা বিমানগুলিকে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। সংবাদ সংস্থা PTI সূত্রে খবর।
PTI সূত্রের খবর, জম্মু, শ্রীনগর ও লেহ বিমানবন্দরের দখল নিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা। আজ সকালে রাজৌরির নৌসেরায় ভারতের আকাশসীমা লঙ্ঘনের চেষ্টা করে পাকিস্তানের যুদ্ধবিমান। তবে ভারতীয় বায়ুসেনার বাধায় তা সম্ভব হয়নি। এরপরই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন ও সেনার শীর্ষকর্তারা। ভারত-পাকিস্তানের সীমান্তবর্তী বিমানবন্দর জম্মু, শ্রীনগর, লেহ, চণ্ডীগড় ও অমৃতসর বিমানবন্দর থেকে অসামরিক বিমান ওঠা-নামা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়।  
এই পরিস্থিতিতে সতর্ক ভারত। পাকিস্তান ও পাক-মদতপুষ্ট জঙ্গিদের হামলায় ভারতীয় নাগরিকদের যাতে কোনও ক্ষতি না হয়, সেই বিষয়ে সতর্ক ভারত সরকার। সেই কারণেই জম্মু-কাশ্মীরের আকাশসীমায় চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হল।
বুধবার সংবাদ সংস্থা এএনআই ট্যুইট করে জানিয়েছে, জম্মু-কাশ্মীরের তিনটি বিমানবন্দরে কড়া সতর্কতা জারি করা হয়েছে। লেহ, জম্মু ও শ্রীনগর বিমানবন্দরে জারি করা হয়েছে কড়া সতর্কতা।
একই সঙ্গে পঞ্জাবের পাঠানকোট বিমানবন্দরেও কড়া সতর্কতা জারি করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, পাঠানকোটে এর আগে বড়সড় জঙ্গি হামলা হয়েছিল।
এছাড়া জম্মু-কাশ্মীরে নিরাপত্তার কারণে আকাশসীমায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। একই সঙ্গে অসামরিক বিমান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।
প্রসঙ্গত, বুধবার সকালে ভারতের আকাশসীমার মধ্যে পাকিস্তানের দু’টি F-16 যুদ্ধবিমান ঢুকে পড়েছিল। কিন্তু ভারতীয় বায়ুসেনা সঙ্গে সঙ্গে প্রতিরোধ করে। তার জেরে ফের নিজেদের সীমানার মধ্যে ঢুকে পড়ে ওই দুই যুদ্ধবিমান।
সূত্রের খবর, এর পরই কড়া সতর্কতা জারি করা হয়েছে। আকাশসীমায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কারণ, পাকিস্তান আকাশপথে হামলা করতে পারে এমন আশঙ্কা করা হচ্ছে বায়ুসেনার তরফে। সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত।

Post a Comment

0 Comments