নাবালিকাকে শ্লীলতাহানি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়লো প্রতিবেশী এক দাদু

ইউবিজি নিউজ, জলপাইগুড়িঃ- নাবালিকাকে শ্লীলতাহানি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়লো প্রতিবেশী এক দাদু। এলাকাবাসীদের গনপিটুনির শিকার অভিযুক্ত দাদু । অভিযুক্তর নাম সুধীর বিশ্বাস( ৬০)। গণপিটুনির হাত থেকে অভিযুক্তকে উদ্ধার করে রাজগঞ্জ থানার পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে রাজগঞ্জ ব্লকের সন্ন্যাসীকাটা এলাকায়।

অভিযোগ, নাবালিকার বাবা ও মা পেশায় শ্রমিক কর্মসূত্রে বাইরে ছিলেন। সেই সুযোগে অভিযুক্ত ব্যক্তি নাবালিকার বাড়িতে ঢুকে শ্লীহতাহানি ও ধর্ষণের চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ নাবালিকার পরিবারের।প্রতিবেশীরা ঘটনাটি বুঝতে পেরেই বৃদ্ধকে ধরার চেস্টা করেন। বৃদ্ধ পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে দির্ঘক্ষন তাড়া করে ধরে ফেলেন গ্রামবাসীরা।এরপর শুরু হয় গণপিটুনি । অভিযুক্তকে এলোপাথাড়ি মারতে শুরু করে গ্রামবাসীরা।

অভিযুক্ত বৃদ্ধের নাম সাধীর বিশ্বাস (৬০)।নাবালিকার প্রতিবেশী বলে জানাগেছে। ঘটনার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় রাজগঞ্জ থানার ওসি খেশাং লামা। অভিযুক্তকে ঐ বৃদ্ধকে উদ্ধার করে রাজগঞ্জ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। নির্যাতিত নাবালিকাকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।এদিকে গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রাজগঞ্জ থানার পুলিশ।